[count_down]

শিরোনাম

সড়ক শৃংখলায় ছাত্রলীগ!

আখাউড়া প্রতিনিধি | মঙ্গলবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | পড়া হয়েছে 289 বার

সড়ক শৃংখলায় ছাত্রলীগ!

পরিচিতজনকে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলেন পৌর কর্মচারি। মোটরসাইকেলটি ‘ভুল’ পথে ঢোকায় দায়িত্বরতদের বাধার মুখে পড়ে পিছন ফিরে সঠিক পথ ধরলেন। ভুল পথে যাওয়ার সময় বাধায় পড়ে লজ্জায় মাথা নোয়ালেন যুবলীগের নেতা। সড়কের মাঝে মোটর সাইকেল থামালে বাঁশির আওয়াজ শুনে দ্রুত ছুটতে হলো সংবাদকর্মী ও ওষুধ কম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধিকে।

সড়কে নিয়ম মেনে চলার এমন কাজ করে যাচ্ছে ছাত্রলীগ। সোমবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌর এলাকার সড়ক বাজার মোড়ে আধাঘন্টার মতো অবস্থান করে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদেরকে সড়ক শৃংখলার কাজ করতে দেখা যায়। এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষাকে সামনে রেখে যানজট নিরসনে পৌর ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এ কাজ করে যাচ্ছেন।


খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পৌর এলাকার যানজট নিরসনে সম্প্রতি পৌরসভা ও পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠক হয়। ওই বৈঠকে যানজট নিরসনে বেশকিছু উদ্যোগ নেয়া হয়। এছাড়া আগে থেকেই সড়ক বাজারের ফুটপাত থেকে ভ্রাম্যমাণ উদ্যোগ নেয়া হয়। এরপরও দোতলা মসজিদের সামনে যানজট লেগেই থাকে। এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার্থীদের নির্বিঘ্নে চলাচলের সুবির্ধাথে গত শনিবার থেকে ছাত্রলীগের ১৫-২০ জন নেতা-কর্মী যানজট নিরসনে চেষ্টা করছেন। পাশাপাশি সড়কে শৃংখলা রাখতে নিয়ম মেনে চলার জন্য চালকদের প্রতি আহবান জানাচ্ছেন।

সোমবার দুপুরে গিয়ে দেখা যায়, মামুন নামে এক ছাত্রলীগ নেতা বাঁশি হাঁকিয়ে এদিক সেদিক গিয়ে যানজট নিরসনের চেষ্টা করছেন। সড়কের মাঝখানে একটি টুল পেতে দেবাশীষ ঘোষ হৃদয়, সাব্বির হোসাইন জিকু, হৃদয় দেবসহ কয়েকজন এ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। তাদের প্রত্যেকের পরনেই এক রকমের জার্সি। এ ধরণের উদ্যোগকে চালকসহ অনেককেই সাধুবাদ জানাতে দেখা যায়। উদ্যোগটা নিয়মিত রাখারও দাবি তুলেন অনেকে। ছাত্রলীগের এ কাজে পৌরসভার দায়িত্বরত ট্রাফিকও সহায়তা করছেন। ছাত্রলীগের জাকারিয়া হাসনাত রাফি, ফারাবি হাসান শাকিল, মো. শাহীন, আবু বক্কর, রাব্বি চৌধুরী, সেলিম বক্স, মৃদুল দেব, হিমেল, রোহান, আমীন, অন্তর, মামুন, ইউসুফ, মনিরসহ আরো অনেকে পালাক্রমে দায়িত্ব পালন করছেন বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

তবে এ কাজ করতে গিয়ে কিছু সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন বলে উদ্যোক্তারা জানান। তারা বলেন, অভ্যস্ত না হওয়ায় সকাল আটটা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করা কঠিন হয়ে পড়ে। বরাদ্দ না থাকায় খাবারের ব্যবস্থাও করা যাচ্ছে। তবে দুই একজন নিজ থেকেই এগিয়ে এসে সহায়তা করবেন বলে জানিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে তারা পৌর মেয়রের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানান।

ছাত্রলীগ নেতা সাব্বির হোসাইন জিকু বলেন, ‘আমরা আনন্দের সঙ্গে কাজটি করে যাচ্ছি। কিছু সময় আমরা থাকার পর চালকরা এমনিতেই নিয়ম মেনে চলে। আমরা যদি কিছুদিন এভাবে চালিয়ে যেতে পারি তাহলে সবার মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি হবে। পৌরসভার মেয়র আমাদের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে নিজেও এসে কিছু সময়ের জন্য অংশ নিয়েছেন।

মূল উদ্যোক্তা ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক দেবাশীষ ঘোষ হৃদয় বলেন, ‘আইনমন্ত্রী (স্থানীয় সংসদ সদস্য) আনিসুল হকের নির্দেশনায় রাজনীতির বাইরেও আমরা সামাজিক দায়িত্ব পালন করতে চাই। এরই অংশ হিসেবে আমরা এ কাজটা করছি। প্রাথমিকভাবে আমরা পরীক্ষা চলাকালীন কাজ করবো। সম্ভব হলে নিয়মিত কাজ করবো।’

আখাউড়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের যুবলীগের আহবায়ক মো. তাকজিল খলিফা কাজল কাজল বলেন, ‘উদ্যোগটি খুবই প্রশংসনীয়। তাদের উদ্যোগের ফলে সড়ক বাজার অংশে যানজট কমার পাশাপাশি শৃংখলাও এসেছে। তাদেরকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে।’

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০