শিরোনাম

বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায়

সুর সম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর ৪৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

মনিরুজ্জামান মনির | রবিবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 237 বার

সুর সম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর ৪৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত শুক্রবার গানে, নাচে ও আলোচনায় বিশ্বের সুরের সাধক, সুর সম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর ৪৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় স্থানীয় সুরসম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক ও সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গণ পরিচালনা কমিটির সভাপতি হায়াত-উদ- দৌলা খাঁন।


জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গণ পরিচালনা কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি আল-মামুন সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান।

বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ গবেষক ও সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গণ পরিচালনা কমিটির সদস্য মনজুরুল আলমের পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সঙ্গীতাঙ্গন পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান সরকার। বক্তব্য রাখেন সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গণ পরিচালনা কমিটির সদস্য ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাহিত্য একাডেমীর সভাপতি কবি জয়দুল হোসেন। উপস্থিত ছিলেন সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গণ পরিচালনা কমিটির সদস্য ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ বাহারুল ইসলাম মোল্লা এবং সঙ্গীতাঙ্গনের শিক্ষক মোঃ হেলাল উদ্দিন।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন বলেন, আমরা যথাযথভাবে সঙ্গীতের এই কিংবদন্তীকে মূল্যায়ন করতে পারছি না। তার জীবনী আমাদের জানতে হবে এবং পরবর্তী প্রজন্মকে জানাতে হবে। কারণ তিনি নিজ ধর্মের প্রতি যেমন অনুরাগী ছিলেন অন্য ধর্মের প্রতিও তাঁর সমান শ্রদ্ধাভক্তি ছিল। তিনি বলেন, ১৯৩৫ সালে তিনি নৃত্যশিল্পী উদয় শঙ্করের সঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ সফর করেন। তিনিই ভারতীয় উপমহাদেশের রাগসঙ্গীতকে সর্বপ্রথম পাশ্চাত্যের শ্রোতাদের নিকট পরিচিত করান। ভারতের লোকজন তাঁর জন্যই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার শিবপুরের নামের সঙ্গে পরিচিত। তিনি ক্ষোভ নিয়ে বলেন, কয়েক বছর আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এক হামলায় সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গণের যাদুঘরে হামলা চালিয়ে ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর সকল স্মৃতি চিহ্ন পুড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। কিন্তু তারা আমাদের হৃদয় থেকে তাঁর চেতনা পুড়তে পারেননি এবং পারবেনও না।

অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা, সঙ্গীত, সাহিত্য, সাংবাদিক সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তি, শিক্ষার্থী এবং বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই অতিথিরা মঞ্চে স্থাপিত সুর সম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।

এর আগে শুক্রবার সকালে সঙ্গীতাঙ্গণের মিলনায়তনে সুর সম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁর মৃত্যু দিবস উপলক্ষে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। পাশাপাশি সঙ্গীতাঙ্গনের শিশু শিল্পিদের অংশ গ্রহনে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত, উচ্চাঙ্গ যন্ত্র সঙ্গীত ও উচ্চাঙ্গ নৃত্য উপর প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন বয়সের প্রায় ১০০জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। তাদের মধ্যে শুক্রবার সন্ধ্যায় ৬০জনকে পুরস্কৃত করা হয়।

বিশ্বখ্যাত এই সঙ্গীতজ্ঞের জন্ম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শিবপুর গ্রামে। সরোদ বাদ্যযন্ত্রের কিংবদন্তী এই সুরের সাধক ১৯৭১ সালের ৬ সেপ্টেম্বর ভারতের মাইহারে পরলোক গমন করেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১