শিরোনাম

নির্বাচনী বিরোধের জের

সরাইলে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে কলেজ ছাত্র নিহত ॥ গ্রেপ্তার-৩১

প্রতিনিধি | শনিবার, ২১ মে ২০১৬ | পড়া হয়েছে 661 বার

সরাইলে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে কলেজ ছাত্র নিহত  ॥ গ্রেপ্তার-৩১

নির্বাচনী বিরোধের জের ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে এক কলেজ ছাত্র নিহত হয়েছে। এসময় উভয় পক্ষের ২০জন আহত হয়। ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ ৩১জনকে গ্রেপ্তার করেছে।
ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের তেলিকান্দি গ্রামে। নিহত কলেজ ছাত্রের নাম মোবাশ্বের আলী-(২১)। সে এই গ্রামের আবদুল জব্বারের ছেলে ও উপজেলার অরুয়াইল আব্দুস সাত্তার ডিগ্রী কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র।
এ ঘটনায় নিহতের পিতা আবদুল জব্বার বাদি হয়ে ৭৫জনকে আসামীকে করে গত শুক্রবার সকালে সরাইল থানায় মামলা দায়ের করেন। গতকাল সকালে জেলা সদর হাসপাতালে নিহতের ময়নাতদন্ত স¤পন্ন হয়।
এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, গত ২৩ এপ্রিল অনুষ্ঠিত উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে তিন ওয়ার্ডের সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী কামাল মিয়া ও জয়নাল মিয়ার লোকজনের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। নির্বাচনে জয়নাল মিয়া বিজয়ী হন। নির্বাচন শেষে জয়নাল মিয়ার সমর্থকরা বিজয় মিছিল বের করলে পরাজিত প্রার্থী কামাল মিয়ার লোকজন মিছিলে বাঁধা দেয়। এনিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
পুরানো বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে উভয়পক্ষের লোকজন দেশি অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে  পুনরায় সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।  সংঘর্ষ চলাকালে টেঁটাবিদ্ধ হয়ে জয়নাল মিয়ার সমর্থক মোবাশ্বের ঘটনাস্থলেই মারা যায়। ঘন্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ২০ জন আহত হন।
খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। পুলিশ রাতভর অভিযান চালিয়ে ৩১ দাঙ্গাবাজকে গ্রেপ্তার করে।
এ ব্যাপারে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রূপক কুমার সাহার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এ ঘটনায় গত শুক্রবার সকালে নিহতের পিতা আবদুল জব্বার বাদি হয়ে ৭৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এ পর্যন্ত ৩১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি বলেন, পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০