শিরোনাম

সরাইলে দুই পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত অর্ধশত

ষ্টাফ রিপোর্টার | রবিবার, ০৩ জানুয়ারি ২০১৬ | পড়া হয়েছে 739 বার

সরাইলে দুই পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত অর্ধশত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুদল গ্রাম বাসীর সংঘর্ষে পুলিশের ছয় সদস্যসহ অন্তত ৫০জন আহত হয়েছে। রোববার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার সৈয়দটুলা গ্রামে এ সংঘর্ষ হয়। প্রায় দেড় ঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষে ৩টি বাড়ীতে হামলা,ভাংচুর এবং লুটপাটের ঘটনা ঘটে ।পুলিশ এবং প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জমি থেকে ভ্যানগাড়ী দিয়ে ধান আনতে দেরী হওয়ায় সৈয়দটুলা গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য বাতেন মেম্বারে পক্ষের ভ্যান শ্রমিক মো:ছোট্ট মিয়াকে মারধর করে একই গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য নুরুল হক মেম্বারের লোকজন। এনিয়ে শনিবার সন্ধ্যায় সৈয়দটুলা গ্রামের হাফেজটুলা গ্রামে উভয় পক্ষের মধ্যে গ্রাম্য শালিস বসে। শালিস সভায় কোন পক্ষই নিজেদের দোষ শিকার না করায় উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়। তখন পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
এদিকে গতকালের ঘটনার জের ধরে আজ সকালে সৈয়দ টুলা গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য বাতেন মেম্বার এবং নুরুল হক মেম্বার লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে আবারো সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সকাল ৮টা থেকে ঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষ চলে। খবর পেয়ে সরাইল থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। সংঘর্ষে পুলিশেল এসআই আব্দুল আলীমসহ ও অপর পাঁচ সদস্যসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৫০জন আহত হয়। আহতদের সরাইল এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ভাংচুর হওয়া বাড়ির গৃহিণী তাসলিমা বেগম বলেন, আমাদের বাড়িতে হামলা চালাইসে। এ সময় তিনি তাদের ঘর লুটপাট করা হয়েছে উল্লেখ করে নারীদের উপর হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। এসময় বিয়ে বাড়ির আয়োজন পন্ড করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।


সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা মো: আলী আরশাদ জানান, সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ১শ৩৮ রাউন্ড শর্টগানের গুলি এবং ১রাউন্ড টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ সময় ঘটনা স্থল থেকে পুলিশ রয়েল নামে ১জন কে আটক করে। পরবর্তী সংঘর্ষের আশংকায় ঘটনা স্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১