শিরোনাম

নবীনগরে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে

শতাধীক বছরের পুরাতন শ্মশানটি দখলের হাত থেকে রক্ষা

নবীনগর প্রতিনিধি : | শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ | পড়া হয়েছে 220 বার

শতাধীক বছরের পুরাতন শ্মশানটি দখলের হাত থেকে রক্ষা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার আইতলা ও সাদেকপুর গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের শতাধীক বছরের পুরাতন শ্মশানের সিমানা জটিলতা সমাধান করলেন নবীনগরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম। তিনি গত ১২ জুন সরকারি সার্ভেয়ার দিয়ে শ্মশানের জমি পরিমাপ করে সীমানা নির্ধারণ করে এ শ্মশানটিকে দখলের হাত থেকে রক্ষা করেন।

জানা যায়, উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের গোপালপুর মৌজার আইতলা ও সাদেকপুর গ্রামের মেঘনা নদীর তীরে ২১ শতক ভূমিতে অবস্থিত স্থানীয় হিন্দু ধর্মালম্বীদের ঐতিহ্যবাহী পুরাতন এই শ্মশানটি।


বহু দিন যাবৎ এ শ্মশানটির ভূমির সীমানা চিহ্নিত না থাকার কারণে আশে পাশের জমির মালিকগণ দিনকে দিন শ্মশানের জমির ভিতরে ঢুকে পড়ছিলো। এতে করে ক্রমশই শ্মশানের সীমানা ছোট হয়ে আসছিলো।

স্থানীয় শ্মশান কমিটি এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর দরখাস্ত প্রদান করলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম বিষয়টির উপর তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে শ্মশান কমিটির সভাপতি ভূবন চন্দ্র বর্মন জানান, এলাকার প্রভাবশালীদের কারনে আমরা আমাদের নিজেদের শ্মশান টিকিয়ে রাখতে পারবো কিনা তা নিয়ে শংকায় ছিলাম। আমাদের ইউএনও স্যারের মহত পদক্ষেপে সীমানা চিহ্নিত হওয়ায় অবশেষে শ্মশানটি দখলের হাত থেকে রক্ষা পেলো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম বলেন, আমি যা করেছি সেটা আমার কর্তব্য। এছাড়াও শ্মশানটির উন্নয়নের জন্য সরকারি কোনো বাজেট আসলে তারা চাইলে আমি এ বিষয়ে সহযোগীতা করবো।

এ বিষয়ে নবীনগর উপজেলার হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ শ্মশানটিকে দখলের হাত থেকে রক্ষা করায় উপজেলা প্রশাসনের প্রসংশা করে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০