শিরোনাম

“রাজাকার আলবদরদের সন্তান ও স্বজনদের বর্জন করুন”

প্রতিনিধি | সোমবার, ২৮ মার্চ ২০১৬ | পড়া হয়েছে 653 বার

“রাজাকার আলবদরদের সন্তান ও স্বজনদের বর্জন করুন”

৪৫ তম  স্বাধীনতা দিবসে সরাইলের শাহাজাদাপুর ইউনিয়নের ৩৫ জন মুক্তিযোদ্ধাকে  সংবর্ধনা দিয়েছেন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম খোকন। মুক্তিযুদ্ধের ৪৫ বছর পর ওই ইউনিয়নে এই প্রথম কোন চেয়ারম্যান জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তানদের আনুষ্ঠানিক ভাবে সম্মান জানালেন। তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে উপহার। গত শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার মলাইশ গ্রামের মন্দির সংলগ্ন মাঠে চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন- জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলহাজ্জ হারুন-অর-রশিদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা কামাল খান। সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন- উপজেলা কমান্ডার মোঃ ইসমত আলী, ইউনিয়ন কমান্ডার হরলাল দেবনাথ, বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রিয়তোষ চক্রবর্তী, অক্ষয় কুমার চৌধুরী, গৌরাঙ্গ দাস, যুবলীগের সম্পাদক আকিল আহমেদ চৌধুরী ও প্রজন্ম লীগের নির্মল চৌধুরী। বক্তারা বলেন, ৭১’র রণাঙ্গনের লড়াকু সৈনিক জাতীর শ্রেষ্ঠ্য সন্তাদের একদিন খুঁজে পাওয়া যাবে না। যারা জীবনের মায়া ত্যাগ করে সংগ্রামের মাধ্যমে আমাদেরকে লাল সবুজের একটি পতাকা দিয়েছে জাতী তাদের কাছে চিরকালই ঋণী। চেয়ারম্যান ও তার পরিষদের এ মহৎ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তারা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, মানবতা বিরোধী রাজাকার আলবদরদের সন্তান এবং আত্মীয় স্বজনদের সামাজিক ও রাজনৈতিক ভাবে বর্জন করুন। তাদেরকে দলীয় কোন পদ দিবেন না। আ’লীগের কিছু নেতা রাজাকারদের সন্তানদের সহায়তা করছে। তাদেরকে ধিক্কার ও নিন্দা জানায়। আগামী ইউপি নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী প্রয়াত সুফিয়া বেগমের ছেলে আলহাজ্জ রফিকুল ইসলাম খোকনের জন্য সকলের সহায়তা প্রত্যাশা করেন। পরে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথির হাতে সংবর্ধনার উপহার তুলে দেন চেয়ারম্যান। অতিথিবৃন্দ ৩৫ জন মুক্তিযোদ্ধা ও প্রয়াতদের স্ত্রী সন্তানদের হাতে তুলে দেয়া হয় পুরস্কার।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০