শিরোনাম

রজব পাচ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ হওয়ার মাস

মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান | শনিবার, ০৭ এপ্রিল ২০১৮ | পড়া হয়েছে 472 বার

রজব পাচ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ হওয়ার মাস

রজব আরবি শব্দ। যার অর্থ সম্মানিত। জাহিলিয়াতের যুগে ও আরব বাসীরা রজব মাসের সম্মানার্থে মারামারি, হানা হানী, ঝগড়া বিবাদ থেকে বিরত থাকত। বিশ্বনবী মোহাম্মদ (সা:) এর নবুওয়ত প্রাপ্তির পর ও ইসলাম ধর্মে রজব মাসের গুরুত্ব ও ফযিলত বিদ্যমান রয়েছে।

রজব ও শাবান মাস মূলত রমজান মাসের ই ভূমিকা স্বরূপ। রাসুল (সা:) পবিত্র রজব মাস থেকে ইরমজান মাসের প্রস্তুতি গ্রহণ করতেন। রজব মাসের চাঁদ উদিত হওয়ার সাথে সাথেই রাসুল (সা:) এই বলে দোয়া করতেন যে, ‘আল্লাহুম্মা বারিকলানা ফি রজবা ওয়া শা ‘বান, ওয়া বাল্লিগনা রমজান (বাইহাকি)।


এমাসে ই আল্লাহতায়ালা তার প্রিয় হাবীব বিশ্বনবী মোহাম্মদ (সা:) কে তার দিদার লাভ করিয়েছেন। যাকে লাইলাতুল মিরাজ অথবা শবে মিরাজ বলা হয়।

রাসুল (সা:) মিরাজের রাতে আল্লাহর দিদার লাভ করে বলে ছিলেন যে, হে আল্লাহ, আমি তো তুমার দিদার লাভের মাধ্যমে ধন্য হয়েছি কিন্তু আমার অসহায় উম্মত যারা তুমাকে না দেখে একমাত্র তুমার প্রতি বিশ্বাস রেখে ঈমান এনেছে তারা কিভাবে তুমার দিদার লাভ করবে।

আল্লাহতায়ালা তখন উম্মতে মোহাম্মদীর উপর পাচ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ করে ঘোষণা করে দিলেন যে, আপনার উম্মত যদি প্রতিদিন পাচ ওয়াক্ত নামাজ সঠিকভাবে আদায় করে তাহলে তারা ও আমার দিদার লাভ করতে পারবে।

আল্লাহতায়ালা আমাদের সকলকে সঠিকভাবে পাচ ওয়াক্ত নামাজ আদায়ের মাধ্যমে আল্লাহতায়ালার দিদার লাভ করার তাওফিক দান করুণ, আমিন।

মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান
সাংগঠনিক সম্পাদক
ইসলামী ঐক্যজোট
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১