শিরোনাম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

মোকতাদির চৌধুরী এমপিকে মন্ত্রিসভায় দেখতে চায় ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী

| বৃহস্পতিবার, ০৩ জানুয়ারি ২০১৯ | পড়া হয়েছে 481 বার

মোকতাদির চৌধুরী এমপিকে মন্ত্রিসভায় দেখতে চায় ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩-(সদর-বিজয়নগর) আসন থেকে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে টানা তৃতীয়বারের মতো বিজয়ী, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক একান্ত সচিব র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপিকে মন্ত্রী সভায় দেখতে চায় ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী।

মোকতাদির চৌধুরী এমপি জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্নেহধন্য ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন রাজনীতিবিদ। তিনি একজন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও বিশিষ্ট লেখক। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক একান্ত সচিব ছিলেন।


তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি গত ৮ বছরে নির্বাচনী এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করেছেন। তৃতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় তাঁকে ঘিরেও স্বপ্ন দেখছেন নেতা-কর্মীরা। তাঁরা মনে করছেন, মোকতাদির চৌধুরীর রাজনৈতিক ভীত খুব শক্তিশালী। তিনি ছাত্র রাজনীতি থেকেই আওয়ামী লীগের সাথে জড়িত। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি ৩লাখ ৯৩ হাজার ৫শত ২৩ ভোট পেয়েছেন।

দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, স্বাধীনতার পর থেকে আওয়ামীলীগের শাসনামলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আসন থেকে নির্বাচিত কাউকেই মন্ত্রী করা হয়নি।

গত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬- (বাঞ্ছারামপুর) আসন থেকে নির্বাচিত আওয়ামীলীগ নেতা ক্যাপ্টেন (অবঃ) এ.বি তাজুল ইসলাম মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবং ২০১৪ সালের দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া -১-(নাসিরনগর) আসন থেকে নির্বাচিত আওয়ামীলীগ নেতা প্রয়াত ছায়েদুল হককে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪- (কসবা ও আখাউড়া) থেকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত অ্যাডভোকেট আনিসুল হক আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রীর দায়িত্ব পান।

এবারের মন্ত্রীসভায় ছাত্রলীগের দুঃসময়ের নেতা ও ৭৫ পরবর্তী সংকটকালে জেল-নির্যাতনের শিকার মোকতাদির চৌধুরীকে তার অবদান মূল্যায়ন করে এবার জেলা সদর থেকে মন্ত্রী বানানোর জন্য আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরা।

এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে মোকতাদির চৌধুরী এমপি তাঁর নির্বাচনী এলাকা সদর ও বিজয়নগর উপজেলায় ৪ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করেছেন। তাঁর নেতৃত্বে তৃণমূল পর্যায়ে দলও খুব শক্তিশালী। আমরা ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী তাঁকে মন্ত্রী সভায় দেখতে চাই।
এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরকার বলেন, মোকতাদির চৌধুরী জনগনের আস্থা অর্জন করতে পেরেছেন। তাঁকে ঘিরে দলীয় নেতা-কর্মীরা স্বপ্ন দেখে। নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনায় আমরা যেখানেই গেছি সেখানেই মানুষ মোকতাদির চৌধুরী বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে মন্ত্রীসভায় স্থান পাবেন বলে প্রত্যাশা করেছেন। তিনি বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উন্নয়নের রূপকার মোকতাদির চৌধুরীও পূর্ণাঙ্গ মন্ত্রী হিসেবে মন্ত্রী সভায় ঠাঁই পাবেন বলে আমরা আশাবাদী।

উল্লেখ্যঃ-র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী ২০১১ সালের ২৮ জানুয়ারি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আসন থেকে উপ-নির্বাচনে প্রথমবারের মতো বিজয়ী হন। পরে তিনি পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্যের দায়িত্ব পালন করেন। বিগত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আসন থেকে ২ লাখ ৬৮হাজার ২৯ ভোট পেয়ে (বাংলাদেশে সর্বোচ্চ ভোট) পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি ৩লাখ ৯৩ হাজার ৫শত ২৩ ভোট পেয়ে তৃতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১