শিরোনাম

সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে মোকতাদির চৌধুরী এমপি

মুক্তিযোদ্ধারা দৃঢ়তর ঐক্য গড়ে তুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন পূরনে কাজ করতে হবে

স্টাফ রিপোর্টার : | রবিবার, ০৪ মার্চ ২০১৮ | পড়া হয়েছে 168 বার

মুক্তিযোদ্ধারা দৃঢ়তর ঐক্য গড়ে তুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন পূরনে কাজ করতে হবে

উন্নয়ন চাইলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করার আহবান জানিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অভাবনীয় উন্নয়নের রূপকার, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য,পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পি।

তিনি আজ রবিবার (০৪.০৩.২০১৮) সকালে পৌর এলাকার পশ্চিম পাইকপাড়ায় (পুরাতন জেলখানার পাশে) সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।


সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জান্নাতুল ফেরদৌসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোকতাদির চৌধুরী এম.পি আরো বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা এদেশের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ সন্তান। মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স আমাদের প্রাণের স্পন্দন। তিনি বলেন, মার্চ মাস স্বাধীনতার মাস। এই মার্চ মার্চের ১ তারিখে আমরা শ্লোগান দিয়েছিলাম “পাকিস্তানে লাথি মারো” “বাংলাদেশ কায়েম কর”। তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭ই মার্চে তাঁর ঐতিহাসিক ভাষন দিয়েছেন। এটি ছিলো বিশ্বের অন্যতম ভাষন। বঙ্গবন্ধুর এই ৭ই মার্চের ভাষন ইতিমধ্যেই জাতিসংঘের ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃতি পেয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি উন্নত-সমৃদ্ধিশালী দেশ গঠনে নিরলসভাবে কাজ করছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানদের কল্যানে কাজ করছেন। তাই আমাদেরকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে হবে। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা দৃঢ়তর ঐক্য গড়ে তুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন পূরনে কাজ করতে হবে। আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে আবারো প্রধানমন্ত্রী বানাতে হবে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে সরকারি চাকুরী ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা কৌটা বাতিল হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। তিনি উন্নতমানের নির্মান সামগ্রী দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মানের জন্য জন্য ঠিকাদারের প্রতি আহবান জানান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান, এলজিইডি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী ফজলে হাবিব, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরকার। সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গীর আলম অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার আবু হোরায়রাহ।
উল্লেখ্য ১ কোটি ৭৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ৫তলা বিশিষ্ট ভবনের প্রথম পর্যায়ে তৃতীয়তলার কাজ বাস্তবায়ন করবে এলজিইডি।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১