শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়াটোয়েন্টিফোরডটনেট-এ সংবাদ প্রকাশের পর মানবিক বিবেচনায় অসহায় শিক্ষার্থী মীমের দায়িত্ব নিলেন জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান

স্টাফ রিপোর্টার : | মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮ | পড়া হয়েছে 548 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়াটোয়েন্টিফোরডটনেট-এ সংবাদ প্রকাশের পর মানবিক বিবেচনায় অসহায় শিক্ষার্থী মীমের দায়িত্ব নিলেন জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান

ব্রাহ্মণবাড়িয়াটোয়েন্টিফোরডটনেট-এ সংবাদ প্রকাশের পর মানবিক বিবেচনায় অসহায় দরিদ্র পরিবারের বড় সন্তান গ্যাসের চুলার আগুনে শরীরের প্রায় ৩০% দগ্ধ হওয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকাধীন শিমরাইলকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী (রোল নং-১৪)।

মীমের দায়িত্ব নিলেন শিক্ষা সাহিত্য সংস্কৃতির পূণ্যভূমি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সুযোগ্য জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান। তাঁর আহ্বানে সাড়া দিয়ে আজ মঙ্গলবার (২৩.০১.২০১৮) বিকেল ৪টায় যথাসময়ে মীম, তার মা বাবা ভাই বোন এবং তার অগ্নি দুর্ঘটনার তথ্য সহ বর্তমান অবস্থা উদঘাটনকারী সাংবাদিকগণ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে উপস্থিত হন। কিন্তু সাক্ষাৎ মেলে সন্ধ্যা ৬টায়। সবার সাথে কুশল বিনিময় করে সর্বজন প্রিয় জেলা প্রশাসক মীম এবং তার মা শুরুফা বেগম, বাবা রোমান মিয়ার সাথে কথা বলে প্রকাশিত সংবাদের বিষয়ে সরাসরি অবহিত হন। জিজ্ঞাসাবাদের জবাবে লেখাপড়া চালিয়ে যেতে মীম এর অদম্য ইচ্ছা শুনে প্রিয়ভাজন জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান ছোট্ট মীম এর মাথায় নিজ স্নেহাশীষ যুক্ত ডান হাত বুলিয়ে আশ্বস্ত করেন, এখন থেকে যতদিন আছি ততদিন পর্যন্ত আমি মীমের দায়িত্ব নিলাম। ওর লেখাপড়ার বিষয়ে আমি ডি পি ই ও (জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার) সহ অন্যান্যদের সাথে কথা বলবো। মীমের মা বাবার উদ্দেশ্যে জেলা প্রশাসক নির্দেশ সূচক মন্তব্য করে বলেন, তবে কোন ভাবেই মীমের লেখাপড়া বন্ধ করা যাবে না। আগুনে পোড়া শরীরের প্লাস্টিক সার্জারী সহ সুচিকিৎসার বিষয়ে মানবিক জেলা প্রশাসক বলেন, এ বিষয়ে আমি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ডিএমসিএইচ) বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারী বিভাগের প্রধান শল্যচিকিৎসক এর সাথে আলোচনা করে ব্যবস্থা নিব। তাৎক্ষণিক তিনি মীমকে নগদ তিন হাজার টাকা অনুদান প্রদান করেন। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ মূলক সংবাদ প্রকাশ করায় জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম সমূহকে ধন্যবাদ জানিয়ে ভবিষ্যতে এই ধরনের মানবিক দায়িত্ব পালনে এগিয়ে আসতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান। জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান এর এই মহানুভবতায় মীম ও তার মা বাবা উনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। বিষয়টি সরকারি প্রশাসনিক কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি গোচরীভূত করায় পরিবারটি সাংবাদিকদেরও কৃতজ্ঞতা জানান। এ সময় দৈনিক আজকের ব্রাহ্মণবাড়িয়া’র সম্পাদক মোঃ আবুনাসের রতন, বার্তা সম্পাদক মোঃ আবুল হাসনাত অপু, ষ্টাফ রিপোর্টার সুজন মাহমুদ, দৈনিক সরোদ এর ষ্টাফ রিপোর্টার বাহাদুর আলম উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়া২৪.নেট-এ “মীমের লেখাপড়া ও আগুনে পুড়ে যাওয়া চিকিৎসার জন্য সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা” শিরোনামে সচিত্র সংবাদ প্রকাশিত হলে এটি মানবতাবাদী জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান এর দৃষ্টি আকর্ষিত হয়। খোঁজখবর নিয়ে তিনি মীম ও তার পরিবারকে সাক্ষাৎ করানোর জন্য সাংবাদিকদের প্রতি গত সোমবার আহ্বান জানান।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১