শিরোনাম

মহাজোট নেতাদের বিরোধীতায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনটি বিএনপি’র কব্জায় চলে যেতে পারে!

স্টাফ রিপোর্টার : | মঙ্গলবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 485 বার

মহাজোট নেতাদের বিরোধীতায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনটি বিএনপি’র কব্জায় চলে যেতে পারে!

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬টি আসনে ৮৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। রিটার্নিং অফিসার কার্যালয়ে বাছাইয়ে ৪০ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। তার মধ্যে বৈধ হওয়ায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন ১৬ জন প্রার্থী। এদের মধ্যে স্বতন্ত্র রয়েছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্যসহ আওয়ামী লীগ নেতা। তারা হলেন এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা এম.পি, বিএনপি’র মনোনীত প্রার্থী সাবেক প্রতিমন্ত্রী উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া, ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা, আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র মোঃ মঈন উদ্দিন মঈন, জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী এডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, জাতীয় পার্টির (জেপি) মনোনীত প্রার্থী জামিলুল হক বকুল, কমিউনিষ্ট পার্টির ঈশা খাঁ, নাগরিক ঐক্য মনোনীত মোবারক হোসেন, জেএসডি’র এডভোকেট তৈমুর রেজা শাহজাদা, ইসলামী ঐক্যজোটের মাওঃ জুনায়েদ আল হাবীব, বিএনপির (স্বতন্ত্র) প্রার্থী শেখ মো: শামীম, এস এন তরুণ দে, আনোয়ার হোসেন মাষ্টার, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত মোঃ জাকির হোসেন, আহসান উদ্দিন খানসহ আরও একজন প্রার্থী।

এদের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে এডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা বিগত দু’টি সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়নে নির্বাচিত বর্তমান সংসদ সদস্য। এ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে কাওকে মনোনয়ন না দিয়ে মহাজোট থেকে জাতীয় পার্টির নেতা ও এরশাদের যুব বিষয়ক উপদেষ্টা এডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়াকে মনোনয়ন দেয়া হলে শ্বশুর জিয়াউল হক মৃধার নেতৃত্বে মেয়ে জামাই রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে সরাইলে জাতীয় পার্টি নেতা কর্মীরা তীব্র প্রতিবাদ বিক্ষোভ প্রদর্শন করে জামাই রেজাউলকে উক্ত নির্বাচনী এলাকায় মেনে নেয়া হবেনা ঘোষণা দিয়ে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে। এতে জাতীয় পার্টিতে শুরু হয়েছে বৈরী অবস্থা। জামাই শ্বশুরকে ‘শ্রদ্ধেয় ব্যক্তি পিতৃসমতুল্য ও বিগত নির্বাচনে তার প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট এর দায়িত্ব পালন করেছেন’ বলে মন্তব্য করার পরও শ্বশুর বর্তমান সংসদ সদস্য জিয়াউল হক মৃধা জামাই রেজাউলকে মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। এমনকি মৃত্যুর পর জামাই যেন তার জানাজা ও দাফনে অংশ না নেয় সেই ওসিয়তও করেছেন। অপর দিকে, আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী মোঃ মঈন উদ্দিন মঈন মাঠে রয়েছেন। এহেন বৈরী অবস্থা বিরাজমান থাকলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) নির্বাচনী আসনে হেভিওয়েট প্রার্থী বিএনপি’র উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়ার সুনিশ্চিত বিজয় অর্জিত হবে বলে এলাকার সচেতন ভোটার এবং রাজনীতি সচেতন ব্যক্তিদের অভিমত।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১