শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২ ডিগ্রি : জনজীবনে বিরাজ করছে স্থবিরতা

স্টাফ রিপোর্টার : | সোমবার, ০৮ জানুয়ারি ২০১৮ | পড়া হয়েছে 631 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২ ডিগ্রি : জনজীবনে বিরাজ করছে স্থবিরতা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আজ সোমবার (০৮.০১.২০১৮) রাত ৮টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা মোবাইল ফোনের ওয়েদার রিপোর্ট থেকে দেখে গেছে ১২ ডিগ্রি। এদিকে টানা শৈত্য প্রবাহের কারণে জনজীবনে স্থবিরতা বিরাজ করছে। শহরের দোকান ও বিপনী বিতানগুলো সকাল বেলা খুলছে দেরীতে আবার সন্ধ্যার সাথে সাথেই শীতের তীব্রতা বাড়ার কারণে দোকান বন্ধ করে গন্তব্যে চলে যাচ্ছেন। এদিকে জ্বর, সর্দি ও অন্যান্য ঠান্ডা জনিত অসুখে ভুগছেন মানুষ। বিশেষ করে শিশু, নারী ও বৃদ্ধরা এই শীতে কষ্ট করছেন সবচেয়ে বেশি। শহর থেকে গ্রামে শীতের তীব্র অনেক বেশি বলে জানা গেছে। প্রতি বছর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাপক হারে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। চলমান শৈত্য প্রবাহে নিম্ন আয়ের মানুষদের মাঝে সমাজের বিত্তবানরা যদি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন তাহলে তারা শীতের কবল থেকে বাচতে পারবেন।

এদিকে দিনমজুর শ্রেণির মানুষেরা প্রচন্ড শীতের কারণে কাজে যেতে পারছে না ফলে তারা আর্থিক সংকটে ভুগছেন। অনেকেই নিরূপায় হয়ে এই শীতেই কাজের সন্ধানে বেরিয়ে পড়ছেন।
খেটে খাওয়া হাজারো মানুষ গত কয়েক দিনের তীব্র শীতে ভোগান্তিতে পড়ছে। কিন্তু এসব মানুষের পাশে গরম কাপড় নিয়ে সহায়তার হাত বাড়িয়ে প্রয়োজনের তুলনায় খুব কমই এগিয়ে আসছেন।


যদিও বিভিন্ন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান ও সরকারি উদ্যোগে কিছু পরিমাণে গরম কাপড় বিতরণের খবরও পাওয়া যাচ্ছে। তবে সেগুলোর পরিমাণ খুবই কম। ফলে শীতার্ত মানুষদের দুর্ভোগের পরিমাণ বাড়ছেই।

তাপমাত্রা নিচে নামার পাশাপাশি উত্তরের হিমেল হাওয়া ঠান্ডার পরিমাণ আরও কয়েকগুণ বেড়ে যায়। পাশাপাশি বয়ে যাচ্ছে শৈত্যপ্রবাহ। চলতি সপ্তাহজুড়েই এইরকম ঠান্ডা থাকতে পারে বলেও জানান আবহাওয়া অধিদপ্তর।

গতকাল অল্প সময়ের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আকাশে সূর্যের দেখা মিলেছে মাত্র। কুয়াশাও ছিল দিনভর। ফলে ঠাণ্ডার পরিমাণ বেলা বাড়লেও কমেনি। বরং বাতাসের কারণে আরো ঠাণ্ডা জেঁকে বসেছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১