শিরোনাম

খেলা পরিচালনা শেষে ঢাকায় ফেরার পথে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের রেফারীর উপর সন্ত্রাসী হামলা

| রবিবার, ০৯ অক্টোবর ২০১৬ | পড়া হয়েছে 113 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের রেফারীর উপর সন্ত্রাসী হামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সুহিলপুরে একটি ফুটবল টুর্ণামেন্টের সেমি-ফাইনাল খেলা পরিচালনা শেষে ঢাকায় ফেরার পথে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের তালিকাভুক্ত রেফারী মোঃ আরিফুর রহমান-(৩৫) এর উপর হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এসময় তারা তাকে বেধরক মারধোর করে তার কাছে থাকা খেলার সরঞ্জাম, নগদ ৬ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।
ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার ৮ অক্টোবর সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার পৈরতলা বাসস্ট্যান্ডে। আহত রেফারী আরিফুর রহমানের বাড়ি কুমিল্লা জেলায়। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার আমন্ত্রনে খেলা পরিচালনা করতে এসেছিলেন। তাকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ঘটনায় শনিবার রাতেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় জিডি করা হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সদর উপজেলার সুহিলপুর খেলার মাঠে “র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পি আন্তঃজেলা ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলা চলছে। শনিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত হয় দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল খেলা। সে খেলা পরিচালনা করেছিলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের তালিকাভুক্ত রেফারী মোঃ আরিফুর রহমান। খেলা শেষে ঢাকায় যাওয়ার জন্য তিনি পৈরতলা বাসস্ট্যান্ডে আসলে তার উপর হামলা করা হয়।
এ ব্যাপারে সুহিলপুর খেলোয়াড় কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুুর রশীদ ভ‚ইয়া বলেন, শনিবার বিকেলে সুহিলপুর খেলার মাঠে “ র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পি আন্তঃজেলা ফুটবল টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল খেলায় অংশ গ্রহণ করে নরসিংদী জেলা দল ও  কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব আইভি রহমান স্মৃতি সংঘ। খেলায় ২-০ গোলে বিজয়ী হয় নরসিংদী জেলা দল। এই খেলা পরিচালনা করেন রেফারী মোঃ আরিফুর রহমান। খেলা শেষে তিনি ঢাকা যাওয়ার জন্য পৈরতলা বাসস্ট্যান্ডে আসলে তার উপর সন্ত্রাসীরা হামলা করে। তিনি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে দোষীদের গ্রেপ্তার দাবি করেন।
রেফারী আরিফুর রহমান বলেন, খেলা পরিচালানা শেষে সন্ধ্যায় তিনি ঢাকা যাওয়ার জন্য পৈরতলা বাসস্ট্যান্ডে পৌছামাত্র ৫/৬জন সন্ত্রাসী তাকে বেদম মারধোর করে তার কাছে থাকা খেলার সরঞ্জাম, নগদ ৬ হাজার টাকা ও একটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। সন্ত্রাসীরা চলে যাওয়ার সময় সে যেন আর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কোন খেলা পরিচালনা করতে না আসে সেজন্য হুমকি দেয়।
এ ব্যাপারে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু এটি একটি ন্যাক্কার জনক ঘটনা। তিনি ঘটনার নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান। তিনি বলেন, রেফারীর উপর হামলার ঘটনার যদি বিচার না হয় তাহলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় খেলাধূলা পরিচালনা করা কষ্টকর হয়ে যাবে।
এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ ইউসুফ হোসেন ফারুক বলেন, আরিফুর রহমান একজন দক্ষ রেফারী। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আমরা তাকে দিয়ে জেলা ফুটবল লীগ ও জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপের খেলা পরিচালনা করিয়েছি। সে সুন্দরভাবে খেলা পরিচালনা করে। তিনি ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন।
এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মঈনুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে এঘটনার আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০