শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত নিহত ॥ ৪ পুলিশ আহত

ষ্টাফ রিপোর্টার | বুধবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৬ | পড়া হয়েছে 252 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত নিহত ॥  ৪ পুলিশ আহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে দুর্ধর্ষ ও কুখ্যাত ডাকাত আবদুল কাদের-(৪৫) নিহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার গভীর রাতে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের সদর উপজেলার সুহিলপুর ইউনিয়নের মৌলভীহাটি এলাকায়। এ সময় ডাকাতদের হামলায় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়। বন্দুক যুদ্ধে নিহত আবদুল কাদের সরাইল উপজেলার কালীকচ্ছ গ্রামের নোয়াব মিয়ার ছেলে।
পুলিশ জানায়, সোমবার রাত দুইটার দিকে সুহিলপুর ইউনিয়নের মৌলভীহাটি নামক স্থানে ডাকাতির প্রস্তুতির খবর পেয়ে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মঈনুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছলে সংঘবদ্ধ ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকলে আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এক পর্যায়ে ডাকাতদল পিছু হটলে সেখানে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত কুখ্যাত ডাকাত আবদুল কাদেরের লাশ পাওয়া যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান, তিনটি তাজা কার্তুজ, ৪টি রামদা ও একটি ছড়ি উদ্ধার করা হয়। বন্দুক যুদ্ধে কনস্টেবল রুবেল হোসেন-(২৩), জুনায়েদ আলম-(২৫), মোঃ আলী হোসেন- (৩৮) ও সোহেল রানা-(২৬) আহত হন। তাদেরকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
এ ঘটনায় সদর মডেল থানার এস.আই আলী আক্কাস বাদী হয়ে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করেছেন।
এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মফিজ উদ্দিন ভূঞা বলেন, কাদেরের বিরুদ্ধে সদর ও সরাইল থানায় ৬ টি ডাকাতি, ১ টি অস্ত্র, ২ টি ধর্ষন মামলা রয়েছে। এসব মামলা ছাড়াও তার বিরুদ্ধে হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর, আশুগঞ্জ, সরাইল থানায় ১০/১৫ টি ডাকাতির মামলা রয়েছে। তিনি বলেন, কাদের জেলার সবচেয়ে কুখ্যাত ডাকাত।  তার জঘন্যতম প্রবনতা ছিলো ডাকাতি শেষে বাড়ির নারীদের ধর্ষন ও অত্যাচার করা।
এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মঈনুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বন্দুক যুদ্ধে নিহত আবদুল কাদের একজন কুখ্যাত ডাকাত।  তার বিরুদ্ধে সদর থানা সহ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন থানায় ডাকাতিসহ বিভিন্ন ধরনের ১২টি মামলা রয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জেলা সদর হাসপাতালে তার ময়নাতদন্ত স¤পন্ন হয়।
এদিকে কুখ্যাত ও দুর্ধর্ষ ডাকাত আব্দুল কাদের বন্দুক যুদ্ধে নিহত হওয়ায় সাধারণ মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০