শিরোনাম

বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জের ধরে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলে পরিবারের উপর দু’দফা হামলায় আহত-৮

শফিকুল ইসলাম সোহেল | বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯ | পড়া হয়েছে 205 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলে পরিবারের উপর দু’দফা হামলায় আহত-৮

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ির সীমানা বিরোধকে কেন্দ্র করে পৌর কাউন্সিলের আত্মীয়দের দু’দফা হামলায় একটি জেলে পরিবারের নারী ও শিশু সহ ৮জন আহত হয়েছে।
বুধবার (২১আগস্ট ২০১৯) পৌর এলাকার ভাদুঘরে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় হামলাকারীরা জেলে পরিবারের ঘর ভাংচুর ও লুটপাট করে।

হামলায় আহতরা হলেন, কার্তিক বর্মণ-(৬৫), কৃষ্ণ বর্মণ-(৪৫), সাবিত্রী বর্মণ-(৪০), সেতু বর্মণ-(৪০), নুপুর বর্মণ-(১২), জবা বর্মণ- (১০), ইতি বর্মণ-(৬) ও পূজা বর্মণ-(৫)। আহতরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। তবে সন্ধ্যা নাগাদ এ ঘটনায় থানায় মামলা হয় নি।


বুধবার বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে হাজির হয়ে ভুক্তভোগীরা জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর সভার ভাদুঘর এলাকার ওয়ার্ড কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম নেহারের নিকটাত্মীয় নুরুল হুদার সাথে বাড়ির সীমানায় খুঁটি কোপা নিয়ে বুধবার সকাল সাতটার দিকে কার্তিক বর্মণের কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে নূরুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা কার্তিক বর্মণকে মারধর করে। এ সময় তার ছেলে কৃষ্ণ বর্মণ এগিয়ে গেলে তাকেও মারধর করা হয়। পুনরায় বিকেলে নুরুল হুদার লোকজন কার্তিক ও তার পরিবারের লোকদেরকে মারধোর করে ও ঘর ভাংচুর করে লুটপাট করে।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ রফিকুল ইসলাম নেহার বলেন, ‘ঘটনাটি তেমন কিছু নয়। দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। বিষয়টি নিয়ে আমি আলোচনা করে মীমাংসা করে দিবো। হামলার শিকার পক্ষটি তাঁর কাছে আসেন নি বলে জানান।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সেলিম উদ্দিন সন্ধ্যায় জানান, এ বিষয়ে কেউ কিছু জানায় নি। আমার জানাও নেই। তবে এ ধরণের অভিযোগ এলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১