শিরোনাম

আপা বলায় শিক্ষার্থীকে থাপ্পড়

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চিকিৎসকের অপসারণ চেয়ে সেবিকাদের বিক্ষোভ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : | শুক্রবার, ১৭ মার্চ ২০১৭ | পড়া হয়েছে 465 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চিকিৎসকের অপসারণ চেয়ে সেবিকাদের বিক্ষোভ

জেলা সদর হাসপাতালের  গাইনি বিভাগের কনসালটেন্ট ডাঃ ফৌজিয়া আক্তার এক সেবিকাকে থাপ্পড় মারায় ঘটনায় তার অপসারণ চেয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে জেলা সদর হাসপাতালে বিক্ষোভ করেছে নার্সিং ইনস্টিটিউটের সেবিকারা। গত বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত হাসপাতাল চত্বরে  সেবিকাদের বিক্ষোভের কারণে এক ঘন্টা সদর হাসপাতালে রোগীদের স্বাস্থ্য সেবা প্রদানসহ সব ধরণের কর্মকান্ড ব্যাহত হয়। গত বুধবার  জেলা সদর হাসপাতালের অস্ত্রোপচার কক্ষে (অপারেশন থিয়েটার) এক শিক্ষানবিশ নার্সকে থাপ্পড়  দেন ডাঃ ফৌজিয়া আক্তার। বিক্ষুব্ধরা অভিযোগ করেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাসিং ইনস্টিটিউটের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী তানজিনা আক্তার বুধবার সদর হাসপাতালের অস্ত্রোপচার কক্ষে থাকা অবস্থায় ডাঃ ফৌজিয়া আক্তারকে “আপা” বলে সম্বোধন করেন। ডা. ফৌজিয়া এতে মনক্ষুন্ন হয়েছেন বুঝতে পেরে তাৎক্ষনিক তার কাছে ক্ষমা চান তানজিনা। এ সময় তানজিনাকে থাপ্পড় মারেন ডা. ফৌজিয়া। এ ঘটনায় অভিযুক্ত চিকিৎসকের অপসারণ দাবি করে গত ১৫ মার্চ বৃহস্পতিবার সকালে নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করে। এ বিষয়ে তাঁরা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের কাছেও অভিযোগ দেন। এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নার্সিং ইনস্টিটিউটের উপ-তত্ত্ববধায়ক কোহিনুর বেগম সাংবাদিকদের জানান, বুধবার সকালে তুচ্ছ ঘটনায় জেলা সদর হাসপাতালের ডাঃ ফৌজিয়া আক্তার নার্সিং ইনস্টিটিউটের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী তানজিনা আক্তারকে থাপ্পর মারেন। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ সেবিকারা ডাঃ ফৌজিয়া আক্তারের অপসারণ চেয়ে হাসপাতালের বিক্ষোভ মিছিল করে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসাপাতলের তত্ত্বাবধায়ক মোঃ শওকত হোসেন জানান, দু’জনের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উভয় পক্ষকে নিয়ে আলোচনায় বসে বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়া হয়েছে। ডা. ফৌজিয়া ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন বলে জানান তিনি।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০