শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে চিত্র সাংবাদিকসহ দুইজনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার | শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০ | পড়া হয়েছে 220 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে চিত্র সাংবাদিকসহ দুইজনের মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ (জ্বর-সর্দি -কাশি ও শ্বাসকষ্ট) নিয়ে একজন চিত্র সাংবাদিকসহ দুইজন মারা গছেন।

শুক্রবার সকালে সদর উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের বিরামপুর গ্রামে ৫০ বছর বয়সী চিত্র সাংবাদিক ও দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে সরাইল উপজেলার কুট্টাপাড়া গ্রামের ৬০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ মারা যান। বিরামপুর গ্রামের চিত্র সাংবাদিক বিটিভির চিত্র সাংবাদিক হিসেবে ঢাকায় কর্মরত ছিলেন।


বিরামপুরে চিত্র সাংবাদিক মৃত্যুর ঘটনায় ওই গ্রামের চারটি পরিবারকে লকডাউন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে বিশেষ ব্যবস্থায় তাঁর লাশ দাফন করা হয়েছে।

সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও সদর উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার বিরামপুর গ্রামের ওই ব্যক্তি গত কয়েকদিন ধরে করোনার উপসর্গ জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। শুক্রবার সকালে নিজ বাড়িতেই তিনি মারা যান।
স্থানীয় লোকজন বিষয়টি সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এবং সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পঙ্কজ বড়ুয়াকে অবহিত করলে সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) এবিএম মশিউজ্জামান এবং সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের একটি প্রতিনিধি দল সকাল ১০টার দিকে ওই ব্যক্তির বাড়িতে যান। পরে দুপুরে বিশেষ ব্যবস্থায় তাঁর লাশ দাফন করা হয়।

এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) পঙ্কজ বড়ুয়া জানান, বিশেষ ব্যবস্থায় ওই ব্যক্তির লাশ দাফনের পর মৃতের পরিবারসহ চারটি পরিবারকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরিবারের বাকী সদস্যদের নমুনাও সংগ্রহ করা হবে।

অপর দিকে সরাইল উপজেলার কুট্টাপাড়া গ্রামের ৬০ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধ শুক্রবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে মারা যান।

ওই ব্যক্তির পরিবারের সদস্যরা জানান, তিনি গত রোববার থেকে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ভুগছিলেন। শুক্রবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে তিনি মারা যান।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ শওকত হোসেন বলেন, ওই ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ সন্দেহ হওয়ায়, ওই ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) ডাঃ আনাস ইবনে মালেক বলেন, তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে সরাইলের কুট্টাপাড়া গ্রামের এক ব্যক্তি মারা গেছেন বলে শুনেছেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১