শিরোনাম

পৗর সভার নির্বাচন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইসলামী আন্দোলনের নেতা-কর্মীদের উপর ইসলামী ঐক্যজোটের সমর্থকদের হামলা

প্রতিনিধি | মঙ্গলবার, ১৫ মার্চ ২০১৬ | পড়া হয়েছে 956 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইসলামী আন্দোলনের নেতা-কর্মীদের উপর ইসলামী ঐক্যজোটের সমর্থকদের হামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার নির্বাচনে ইসলামী ঐক্যজোটের মেয়র প্রার্থী মাওলানা ইউসুফ ভূইয়া (মিনার) এর গ্রাম পৌরসভার ভাদুঘরে গনসংযোগ করতে গিয়ে ইসলামী ঐক্যজোটের নেতা-কর্মীদের হামলায় আহত হয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থী হাজী সিরাজুল ইসলামসহ ১০জন নেতা-কর্মী। এ সময় ইসলামী ঐক্যজোটের সমর্থকরা ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থীর সমর্থকদের একটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে। হামলার শিকার হয়ে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থীসহ সমর্থকরা একটি বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নিলে সেখানেও হামলা করা হয়।
ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার দুপুরে পৌর এলাকার ভাদুঘর বড় হুজুরের বাড়ি (মরহুম মাওলানা সিরাজুল ইসলাম) এলাকায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
আহতরা হলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থী হাজী সিরাজুল ইসলাম (হাতপাখা), তার ছেলে শামস আল ইসলাম ভূঞা, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ জেলা সেক্রেটারি মাওঃ নিয়াজুল করিম, ছাত্র আন্দোলনের জেলা সভাপতি শেখ ইহতেশাম বিল্লাহ আজিজি, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু হানিফ নোমান, মেয়র প্রার্থীর আত্মীয় আতিকুর রহমান ও শিশু মুনতাহা।
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতা-কর্মীরা অভিযোগ করে বলেন, আগামী ২০ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর সভার নির্বাচন। পৌর নির্বাচনে ইসলামী ঐক্যজোটের মেয়র প্রার্থী মাওলানা ইউসুফ ভূইয়ার বাড়ি ভাদুঘর গ্রামে। নির্বাচনে তার বিরুদ্ধে প্রার্থী না দিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতৃবৃন্দকে অনুরোধ করেন ভাদুঘর জামিয়া সিরাজিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওঃ মুনিরুজ্জামান সিরাজী। কিন্তু কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মেয়র পদে প্রার্থী দেয়। এনিয়ে ইসলামী ঐক্যজোটের নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়। গতকাল সোমবার দুপুরে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থী হাজী সিরাজুল ইসলাম (হাতপাখা) তার সমর্থকদের নিয়ে ভাদুঘর গ্রামে গনসংযোগ করতে গেলে মাও.ইউসুফ ভূঞার উপস্থিতিতে ইসলামী ঐক্যজোটের সমর্থকরা তাদেরকে মারধোর করেন। এসময় হামলাকারীরা তাদের একটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে।
এ ব্যাপারে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের জেলা সেক্রেটারি মাওঃ নিয়াজুল করিম জানান, পৌর নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী না দিতে বলেন ভাদুঘর জামিয়া সিরাজিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওঃ মুনিরুজ্জামান সিরাজী। কিন্তু কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে আমাদের প্রার্থী দিতে হয়েছে। এ নিয়ে মাওঃ মুনিরুজ্জামান সিরাজী ও ইসলামি ঐক্যজোটের নেতা-কর্মীরা আমাদের উপর ক্ষিপ্ত ছিলো। গতকাল সোমবার ভাদুঘর গ্রামে মেয়র প্রার্থী সহ আমরা জনসংযোগে গেলে মাওঃ মুনিরুজ্জামান সিরাজী ও ইসলামী ঐক্যজোটের মেয়র প্রার্থী মাওঃ ইউসুফ ভূঞার উপস্থিতিতে ইসলামী ঐক্যজোটের সমর্থকরা আমাদের উপর হামলা করে। এ সময় তারা আমাদের একটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে। তাদের হামলায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থীসহ ১০জন আহত হয়। হামলার শিকার হয়ে ইসলামী আন্দোলনের নেতা-কর্মীরা আতিকুর রহমানের বাড়িতে আশ্রয় নিলে সেখানেও তারা হামলা করে।
এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মঈনুর রহমান বলেন, দু’পক্ষের মারামারির খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করি। দু’পক্ষকেই শান্তিপূর্ণ অবস্থানে থাকতে অনুরোধ করি।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০