শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আহমদিয়া সম্প্রদায়ের দুই লাশ দাফনে বাঁধা প্রদান ॥ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সুরাহা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি | বৃহস্পতিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 125 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আহমদিয়া সম্প্রদায়ের দুই লাশ দাফনে বাঁধা প্রদান ॥ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সুরাহা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আহমদিয়া সম্প্রদায়ের দুইজনের লাশ দাফনে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার ২৩শে ডিসেম্বর, ২০২১ সকালে সদর উপজেলার সুহিলপুর ইউনিয়নের ঘাটুরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে এ ঘটনায় উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পুলিশের উপস্থিতিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের কান্দিপাড়ায় আহমদীয়া সম্প্রদায়ের নিজস্ব কবরস্থানে লাশ দুটো দাফনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। পাশাপাশি সুহিলপুরে আহমদিয়া সম্প্রদায়ের জন্য আলাদা কবরস্থান করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

স্থানীয় সূত্র ও পুলিশ জানায়, গত বুধবার রাতে ঘাটুরা গ্রামের আহমদিয়া সম্প্রদায়ের ৪৭ বছর বয়সী এক নারী ও বৃহস্পতিবার ভোরে ৭০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ মারা যান।


বৃহস্পতিবার সকালে ঘাটুরা গ্রামের কবরস্থানে লাশ দাফন করতে গেলে স্থানীয়রা বাঁধা দেন। মুসলমানদের কবরস্থানে আহমদিয়া সম্প্রদায়ের লাশ দাফন করতে দেয়া হবেনা বলে স্থানীয়রা জানিয়ে দেন। এনিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে দুইপক্ষের মধ্যে আলোচনা করে লাশ দুটো কান্দিপাড়ায় অবস্থিত আহমদিয়া সম্প্রদায়ের নিজস্ব কবরস্থানে দাফন করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

এ ব্যাপারে ঘাটুরা গ্রামের বাসিন্দা ও আহমদিয়া মুসলিম জামাতের সাধারণ সম্পাদক এস.এম. সেলিম বলেন, লাশ দুটো দাফনের জন্য ঘাটুরা গ্রামের কবরস্থানে কবর খোঁড়া শুরু করলে গ্রামের কিছু লোক এসে বাঁধা প্রদান করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে ও পুলিশের উপস্থিতিতে লাশ দুটো শহরের কান্দিপাড়ার আহমদিয়া কবরস্থানে দাফনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয় এবং ঘাটুরা গ্রামে আহমদিয়াদের জন্য আলাদা কবরস্থান করে দেয়া হবে বলে জানানো হয়।

এ ব্যাপারে সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজাদ হোসেন হাজারী আঙ্গুরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশের উপস্থিতিতে বিষয়টির সমাধান হয়েছে। লাশ দুটি শহরের কান্দিপাড়ায় আহমদিয়া সম্প্রদায়ের নিজস্ব কবরস্থানে দাফনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ একরামুল ইসলাম বলেন, দুইপক্ষের সাথে আলোচনা করে কান্দিপাড়া এলাকায় আহমদিয়া সম্প্রদায়ের নিজস্ব কবরস্থানে লাশ দুটো দাফনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘাটুরা গ্রামে আহমদিয়া সম্প্রদায়ের জন্য আলাদা একটি কবরস্থান করে দেয়ারও সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১