শিরোনাম

বিশ্বের ১৪ শতাংশ ধনী দেশগুলো জন্য ৫৩ শতাংশ টিকা মজুত

অনলাইন ডেস্ক | বৃহস্পতিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 205 বার

বিশ্বের ১৪ শতাংশ ধনী দেশগুলো জন্য ৫৩ শতাংশ টিকা মজুত

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে শুরু হয়ে গেছে টিকা কর্মসূচি। যুক্তরাজ্য ও রাশিয়া সাধারণ মানুষদের টিকা দেয়া শুরু করেছে। শিগগিরই শুরু করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রও।

এর মধ্যে ধনী দেশগুলো টিকার ডোজ মজুত করছে বলে দ্য পিপলস ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্স জানিয়েছে। এর ফলে দরিদ্র দেশের জনগণ টিকা থেকে বঞ্চিত হতে পারে বলে তারা সতর্ক করেছে।


মঙ্গলবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ধনী দেশগুলো করোনা প্রতিরোধে কার্যকর প্রমাণিত টিকার ৫৩ অংশ কিনে ফেলেছে। এসব দেশ বিশ্বের জনসংখ্যার মাত্র ১৪ শতাংশের প্রতিনিধিত্ব করে।

ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবার জন্য ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে সক্রিয় সংগঠনগুলোর জোট দ্য পিপলস ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্স জানায়, ৭০টি নিম্ন আয়ের দেশে ১০ জনের মধ্যে কেবল একজন টিকা দিতে পারবেন।

জোটটির মতে, যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড গবেষণায় বানানো টিকাটির ৬৪ শতাংশই উন্নয়নশীল বিশ্বে সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পরেও টিকার এই অপ্রতুলতা থাকবে।

জানা গেছে, বাজারে আসার আগেই সম্ভাব্য প্রতিটি টিকাই ধনী দেশগুলো কিনে রাখছে। ফলে সবগুলো টিকা অনুমোদন পেলে ধনী দেশগুলোর হাতে যে পরিমাণ টিকা মজুত থাকবে তা দিয়ে, তাদের জনগণকে তিনবার টিকা দেয়া যাবে।

যেমন কানাডা এখন পর্যন্ত টিকার পেছনে যে পরিমাণ টাকা ঢেলেছে, তাতে দেশটির প্রত্যেকটি নাগরিককে পাঁচবার করে টিকা দেয়া যাবে।

অক্সফামের হেলথ পলিসি ম্যানেজার আন্না মেরিয়ট বলেন, ‘জীবন রক্ষাকারী ভ্যাকসিন পাওয়ার ক্ষেত্রে সম্পদ কারো বাধা হতে পারে না। তবে নাটকীয় কিছু না ঘটলে বিশ্বজুড়ে কয়েক বিলিয়ন মানুষ আগামী কয়েক বছরেও কভিড-১৯ এর নিরাপদ ও কার্যকর টিকা পাবে না।’

মঙ্গলবার ৯০ বছরের এক বৃদ্ধাকে দিয়ে ব্রিটেনে শুরু হয়েছে গণ টিকাদান কর্মসূচি। মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা ফাইজার ও জার্মান জৈবপ্রযুক্তি সংস্থা বায়োএনটেকের বানানো টিকার প্রয়োগ করে দেশটি।

গত শনিবার মস্কোতে গণ টিকাদান কর্মসূচি শুরু করে রাশিয়া। নিজেদের বানানো টিকা স্পুটনিক ভি দেয় দেশটি। এদিকে অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে মার্কিন সংস্থা মডার্না এবং ব্রিটিশ সংস্থা অ্যাট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ডের বানানো টিকা।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০