শিরোনাম

নাগরিক সম্মিলনীতে বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মোঃ ইসমাইল হোসেন

বিদায়ী পুলিশ সুপার জনগণের ভালবাসা কুড়িয়েছেন তাঁর মানবদরদি কাজের জন্য

| মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮ | পড়া হয়েছে 123 বার

বিদায়ী পুলিশ সুপার জনগণের ভালবাসা কুড়িয়েছেন তাঁর মানবদরদি কাজের জন্য

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মোঃ ইসমাইল হোসেন বলেছেন, বিদায়ী পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান ব্যক্তিগত ও পেশাগত দায়িত্বের বাইরেও জেলার মানুষের জন্য ব্যাপক কল্যাণ কাজ করেছেন। তিনি জনগণের ভালবাসা কুড়িয়েছেন তাঁর মানবদরদি কাজের জন্য। মিজানুর রহমানের প্রতিটি কর্মকান্ডই ছিল বৈপ্লবিক ও পরিবর্তনমূলক। সাফল্যের সিঁড়ি বেয়ে একদিন তিনি পুলিশ বিভাগে নতুন ডাইমেনশন তৈরীতে সক্ষম হবেন বলে আমার বিশ্বাস। আমি তাঁর চাকুরী জীবনে সর্বাঙ্গীন সফলতা কামনা করি। মহান আল্লাহর নিকট প্রার্থনা করি তিনি যেন তাঁর বাকী জীবনে পরিবার-পরিজন নিয়ে সুখ-শান্তিতে কাটাতে পারেন।’

গত রোববার সন্ধ্যায় সুরসম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গনে দৈনিক সমতট বার্তা পরিবারের পক্ষ থেকে জেলার বিদায়ী পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) ও নবাগত পুলিশ সুপার মোঃ আনোয়ার হোসেন খান বিপিএম, পিপিএম এর সম্মানে এক নাগরিক সম্মিলনীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলো বলেন।


জেলা প্রশাসক মোঃ রেজওয়ানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নাগরিক সম্মিলনীতে বিদায়ী ও নবাগত অতিথির বক্তব্য রাখেন বিদায়ী পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান ও নবাগত পুলিশ সুপার মোঃ আনোয়ার হোসেন খান। সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান বলেন, পুলিশ সুপার হিসেবে বিদায়ী পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যেভাবে দায়িত্ব পালন করে গেছেন, তা তুলনাহীন। আমি আশা করবো- মিজানুর রহমান সাহেব যেভাবে তার দায়িত্ব পালন করে সকলস্তরের মানুষের যে ভালবাসা পেয়েছেন, নতুন পুলিশ সুপার মোঃ আনোয়ার হোসেন খান বিপিএম পিপিএম তিনিও জেলাবাসীর সুখ-শান্তি ও কল্যাণে সেভাবে কাজ করে জেলা পুলিশের সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখবেন। তাঁর এসব কাজে প্রশাসনিকভাবে আমাদেরও সহযোগিতা থাকবে।

মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমি ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে চলে গেলেও আমার চেতনা মনন ও মানসিকতাজুড়ে থাকবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষ ও তিতাস জনপদ। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সর্বস্তরের মানুষ তাঁদের ভালবাসা দিয়ে আমাকে নতুন করে তৈরী করেছেন। আমি তাঁদের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা জানাই। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।

নবাগত পুলিশ সুপার মোঃ আনোয়ার হোসেন খান তাঁর বক্তব্যে বলেন, পুলিশিং এর বাইরেও সামাজিক কাজকর্মের মাধ্যমে মানুষকে যদি এগিয়ে আনা যায়, তাহলে সমাজে অপরাধ প্রবণতা অনেকাংশে কমবে- বিদায়ী পুলিশ সুপার স্যার এ দৃষ্টিকোণ থেকে কাজ করেছেন বলেই তিনি এখানে এত জনপ্রিয় হতে পেরেছেন। আমিও আপনাদের নিকট এ ধরনের সহযোগিতাই চাই। আমিও স্যার এর মত খোলামেলাই থাকবো। আমাকেও আপনারা আপনাদের কাছেই পাবেন। সেবার মনোভাব নিয়েই আমি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসেছি। পুলিশের কাজই হল মানুষকে সেবা দেয়া। আমি অঙ্গীকার করছি- এই জনপদকে অপরাধমুক্ত রাখতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাব। তবে, এর জন্য আপনাদের সহযোগিতা লাগবে। আমি আপনাদেরকে জানাতে চাই যারা সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে তাদের সাথে আমার কোন আপোষ নেই। সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনে আমি আপনাদের দোয়া চাই।

নাগরিক সম্মিলনীতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র মিসেস নায়ার কবীর, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলমামুন সরকার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর এ এস এম শফিকুল্লাহ, জেলা নাগরিক কমিটির সভাপতি ডাঃ মোহাম্মদ বজলুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ডাঃ মোঃ আবু সাঈদ, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক এর নির্বাহী চেয়ারম্যান লায়ন ফিরোজুর রহমান ওলিও, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব সভাপতি খ. আ. ম রশিদুল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সুরসম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গনের সাধারণ সম্পাদক কবি আবদুল মান্নান সরকার, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তাসলিমা সুলতানা খানম নিশাত, জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক এডঃ মাহবুবুল আলম খোকন, জেলার শিক্ষা- বান্ধব ব্যক্তিত্ব আলহাজ্ব এডঃ লোকমান হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন দৈনিক সমতট বার্তার সম্পাদক ও প্রকাশক মনজুরুল আলম। বিদায়ী পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) ও নবাগত পুলিশ সুপার মোঃ আনোয়ার হোসেন খানকে সংবর্ধনা ক্রেস্ট প্রদান করেন মনজুরুল আলম। এছাড়া বিদায়ী অতিথিকে পৃথকভাবে ক্রেস্ট প্রদান করেন দৈনিক সমতট বার্তা পাঠক ফোরাম সভাপতি হাজী মোঃ সায়েদুর রহমান সর্দার, সাধারণ সম্পাদক সাফিরউদ্দিন চৌধুরী রনি ও দৈনিক সমতট বার্তা ঢাকা ব্যুরো প্রধান মোঃ সামসুল আলম রাজু। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আল আমিন শাহীন। নাগরিক সম্মিলনীতে জেলার সকলস্তরের শীর্ষ নাগরিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১