শিরোনাম

বাসা ভাড়ার নাম করে মোবাইল চুরি

বিশেষ প্রতিনিধি : | বুধবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | পড়া হয়েছে 157 বার

বাসা ভাড়ার নাম করে মোবাইল চুরি

চট্টগ্রামে বাসা ভাড়া নেওয়ার কথা বলে একের পর এক মোবাইল চুরি করছে একটি চক্র। চার সদস্যের ওই দলে রয়েছে চল্লিশোর্ধ্ব এক নারীসহ এক কিশোর ও দুই তরুণ। তারা গত এক মাসে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় একই কায়দায় বেশ কয়েকটি চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে। একের পর এক চুরির ঘটনা ঘটালেও তারা এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে। পুলিশ তাদের ধরার চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছে নগরীর আকবর শাহ থানার ওসি আলমগীর মাহমুদ।

ভুক্তভোগীরা এসব চুরির ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। এমনকি পুলিশকে তারা সিসিটিভি ফুটেজ থেকে নেওয়া ওই চারজনের ছবিও দিয়েছেন।


ভুক্তভোগীরা বলেন, ‘তারা একই পরিবারের সদস্য সেজে চুরি করে। মা-ছেলে পরিচয় দিয়ে তারা বাসা ভাড়ার জন্য আসে। বাসা দেখার এক পর্যায়ে ওই নারী বাসার মালিককে কথাবার্তায় ব্যস্ত রাখে। এই ফাঁকে অন্যরা চুরি করে।

গত ২৫ জানুয়ারি নগরীর আকবর শাহ থানাধীন উত্তর কাট্টলী বিশ্বাস পাড়া এলাকার বখতিয়ার কজেটে মালিক ইমতিয়াজ চৌধুরী জানান, ‘সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিন ছেলেকে নিয়ে ওই নারী আমার বাসা ভাড়া নেওয়ার জন্য আসেন। ৫ তলায় ও ৬ তলায় ফ্লাট দেখিয়ে দারোয়ান নিচে নেমে গেলে ওই নারী দ্বিতীয় তলায় আমাদের ফ্লাটে আসে। আমার স্ত্রীর সাথে কথা বলতে বলতে ওই নারী কিচেনে চলে আসে এবং বাসা পছন্দ হয়েছে জানিয়ে কাল অ্যাডভান্সের টাকা দিয়ে যাবেন বলে আমার স্ত্রীকে অনুরোধ করতে থাকেন। এক পর্যায়ে তার সঙ্গে আসা অপর তিন জন বেডরুমে ঢুকে আমার স্ত্রীর স্মার্ট ফোন নিয়ে যায়। ওই রুমে আমার ছেলে ছিল, তাদের মধ্যে বড় ছেলেটা খেলার ছলে ওকে রুম থেকে বের করে নিয়ে আসেন। এই ফাঁকে অন্যরা স্মার্ট ফোনটি নিয়ে যায়।’

ইমতিয়াজ চৌধুরী বলেন, ‘তারা বাসা থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর পরই রুমে গিয়ে আমার স্ত্রী দেখতে পায় তার মোবাইল ফোনটি নেই। এরপর তাদের অনেক খোঁজাখুজি করেও পাওয়া যায়নি। আমরা আকবর শাহ থানা পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছি। বাসার সিসিটিভি ফুটেজে তাদের শনাক্ত করে ওই ফুটেজ পুলিশকে দিয়েছি। কিন্তু এখনও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করতে পারেনি।’
আকবর শাহ থানার ওসি আলমগীর মাহমুদের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ রকম একটি চুরির অভিযোগ আমরা পেয়েছি। চোর চক্রের এই চার সদস্যকে ধরতে আমরা কাজ করছি।’

এ ঘটনায় ইমতিয়াজ চৌধুরী ওই নারীসহ চারজনের ছবি দিয়ে তাদের ধরিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তার ওই স্ট্যাটা দেখে অমিতাব দাশ নামে এক ব্যক্তি কমেন্টে ‘তার বাসায়ও একই কায়দায় এই চারজন চুরি করেছে বলে জানিয়েছেন।’

অমিতাব দাশ তার কমেন্টে লিখেছেন, একই কায়দায় আমার বাসা থেকে স্যামসাং গালাক্সি জে-৫ সেটটি নিয়ে গেছে। বাসায় আমার মা একা ছিল। বোরকা পরা এক নারী তিন ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে আমাদের উপরের তলা ভাড়া নিতে আসে। ওই নারী বাসায় ঢুকে আমার মায়ের সাথে কথা বলতে শুরু করেন, এসময় তার সঙ্গে আসা ছেলেদের একজন ড্রয়িং রুমে গিয়ে আমার মোবাইল ফোনটি নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আমরা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছি।’

নগরীর বায়েজিদ থানাধীন টেক্সটাইল গেইট এলাকার বাসিন্দা এশিয়ান গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের কর্মকর্তা আরিফ বিল্লাহ জানান, ‘৫ জানুয়ারি এই চার জন আমাদের বাসায় এসেছিল। ওই দিন শুক্রবার ছিল, আমরা সবাই জুমার নামাজে ছিলাম। তবে আমাদের বাসা থেকে কিছু চুরি করতে পারেনি। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে এই চার জনের বিষয়টি আমি নিশ্চিত হয়েছি।’
বাংলা ট্রিবিউন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১