শিরোনাম

বাঞ্ছারামপুরে মোট প্রার্থী ৬ হলেও নৌকা-ধানের শীষের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে

বাঞ্ছারামপুর প্রতিনিধি : | মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 535 বার

বাঞ্ছারামপুরে মোট প্রার্থী ৬ হলেও নৌকা-ধানের শীষের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে গতকাল ১০ ডিসেম্বর সোমবার বিকেলে নৌকা প্রতীক নিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-০৬ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী ক্যাপ্টেন অব. এ বি তাজুল ইসলাম এম.পি, বিএনপির ধানের শীষ নিয়েছেন সাবেক এম.পি এম এ খালেক পিএসসি। এ ছাড়া স্ব স্ব দলীয় প্রতীক নিয়েছেন জাসদ (রব) এডভোকেট কে এম জাবির, জাপা এরশাদের উন্মুক্ত প্রার্থী জেসমিন নূর বেবী, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের রেজাউল করীম এবং প্রবীণ দক্ষ রাজনীতিবিদ সিপিবি দলীয় প্রার্থী এডভোকেট সৈয়দ মো. জামাল। অনেকে সরাসরি না এসে তাদের নেতাকর্মীদের দিয়ে রিটার্নিং অফিসারের কাছ থেকে প্রতীক গ্রহণ করেন।

এদিকে প্রতীক হাতে পেয়েই মিছিল নিয়ে মাঠে নেমে গেছেন প্রার্থীরা। নৌকার মাঝি সাবেক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অব. এ বি তাজুল ইসলাম এমপি বলেন, এই প্রতীকের ওপর বাঙালির যে অগাধ আস্থা ও বিশ্বাস, তার মর্যাদা রক্ষা করে আমরা এতদিন কাজ করেছি। আগামী দিনেও এই প্রতীকের মর্যাদা রক্ষা করেই কাজ করবো। নৌকার জয়যাত্রায় অন্যসব উড়ে যাবে।


প্রতীক পেয়ে এম. এ খালেক পিএসসি বলেন, ধানের শীষ মানে খালেদা জিয়ার মুক্তি। ধানের শীষ মানে উন্নয়ন। ধানের শীষ মানে তারেক জিয়ার দেশে ফেরার সনদ। বাঞ্ছারামপুরবাসীর ধানের শীষ ছাড়া অন্যকোন প্রতীকে আস্থা নেই।

তবে, এলাকাবাসী ও ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রার্থী ৬জন হলেও মূলত: লড়াই হবে নৌকা-ধানের শীষের মধ্যে। আর সেটি হবে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। ক্যাপ্টেন অব. এ বি তাজুল ইসলাম ৩ বার নির্বাচিত এম পি। ধানের শীষের এম এ খালেক ২০০১ সালে তাজকে পরাজিত করে বিজয়ী হন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১