শিরোনাম

বাঞ্ছারামপুরে ফলের আড়তে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, পালালো ফল ব্যবসায়ীরা!

বাঞ্ছারামপুর প্রতিনিধি : | শনিবার, ১৯ মে ২০১৮ | পড়া হয়েছে 183 বার

বাঞ্ছারামপুরে ফলের আড়তে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান,  পালালো ফল ব্যবসায়ীরা!

চলছে মাহে রমজান, আত্মশুদ্ধি ও আত্মজাগরণের মাস। তাকওয়া অর্জনই মাহে রমজানের মূল টার্গেট। এ মাস মানবিক কল্যাণবোধে উজ্জীবিত হওয়ার মাস। সারাদিন রোজা রেখে সন্ধ্যায় ইফতারের প্রধান অনুসঙ্গ হয়ে উঠে আম, কাঁঠাল, লিচু, আনারস সহ হরেক রকম ফল।

পবিত্র রমজান মাসকে টার্গেট করে বাঞ্ছারামপুরের হাট বাজারে সক্রিয় হয়ে উঠেছে একশ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী। ফলে বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ কার্বাইড, ইথানল ও ফরমালিনের মিশ্রণ দিয়ে অসময়ে পাঁকিয়ে বিক্রয়ের অভিযোগে বাঞ্ছারামপুর পৌর এলাকার চকবাজারে দুই ফল ব্যবসায়ীকে ৬ হাজার টাকা করে ১২ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।


আজ শনিবার (১৯.০৫.২০১৮) দুপুরে বাঞ্ছারামপুরের সহকারি কমিশনার (ভূমি) আলমগীর হুসেন এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় উপজেলার সাংবাদিক, পুলিশ প্রশাসনের সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

ম্যাজিস্ট্রেট আগমণ ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার খবর পেয়ে বাজারের বহু ফল ব্যবসায়ী দ্রুত দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যান।

বাজারে উপস্থিত ক্রেতাসাধারণ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এখন আমের ভরা মৌসুম। আমকে বলা হয় ফলের রাজা। খেতে যেমন সুস্বাদু ও রসালো তেমনি পুষ্টিগুণের দিক থেকেও অতুলনীয়। ছোট বড় সব বয়সী মানুষের কাছেই এটি একটি জনপ্রিয় ফল। তবে ফরমালিন ও কীটনাশক মেশানোর কারণে এই সুস্বাদু ফলটিই মানুষ খেতে ভয় পায়। তাই মন চাইলেও মানুষ ইচ্ছা মতো আম খাওয়া থেকে নিজেদের বিরত রাখছেন।

প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, আজ দোকান বন্ধ করে পালিয়ে বাঁচলেও এখন থেকে প্রতি সপ্তাহে এক থেকে দু’বার যে কোনো দিন আকস্মিক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০