শিরোনাম

বাঞ্ছারামপুরে জেএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্রের নামে টাকা নেয়ার অভিযোগ

বাঞ্ছারামপুর প্রতিনিধি : | শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 158 বার

বাঞ্ছারামপুরে জেএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্রের নামে টাকা নেয়ার অভিযোগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় আগামী ১ নভেম্বর হতে শুরু হওয়া ৮ম শ্রেনীর জেএসসি/জেডিসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র দেয়ার নামে উপজেলার বেশকিছু স্কুল কর্তৃপক্ষ অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ডিডি) গৌতম মিত্র বাঞ্ছারামপুরের বিভিন্ন স্কুল পরিদর্শনে আসলে এসব অভিযোগ জেনে তিনি আগামী রবিবারের (২৯.১০.২০১৭) মধ্যে যে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রবেশপত্রের নামে অনিয়মের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন তা ফেরত দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। নতুবা-সংশ্লিষ্ট স্কুলের এমপিও স্থগিত করা হবে বলে এই শিক্ষা কর্মকর্তা হুশিয়ারী উচ্চারণ করে তা বাঞ্ছারামপুর মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু তৌহিদকে পর্যবেক্ষণ করার দায়িত্ব দেন বলে জানা যায়।

উজানচর কে এন উচ্চ বিদ্যালয়, বাহেরচর উচ্চ বিদ্যালয়,ধারিয়ারচর ওমর আলী উচ্চ বিদ্যালয়, রূপুসদী জামিদা মনসু আলী উচ্চ বিদ্যালয়সহ আরো বেশ কিছু স্কুলের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট স্কুলের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা জানান,ফর্ম ফিলাপের সময়-ই স্কুলের যাবতীয় ফি দেয়া হয়েছে। দেয়া না হলে ফর্ম ফিলাপ হলো কি করে? তার উপর প্রবেশ পত্রের সময় টাকা নেয়াটা হয়রানি ছাড়া আর কি করার আছে।


বাহেরচর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের জনৈক শিক্ষার্থীর পিতা জানান আমার ছেলের প্রবেশপত্রের জন্য আজ ৬শত টাকা দিয়েছি ধারকর্জ করে। আবার টিফিন বক্সের নামে নিয়েছে ৫০ টাকা, বিষয়টি বুঝলাম না।’
এ বিষয়ে মুঠোফোনে উজানচর কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানান, ‘আমাদের ম্যানেজিং কমিটিকে জানিয়ে শিক্ষকদের আনুষাঙ্গীক বিভিন্ন খরচের জন্য ৫’শত টাকা করে নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে এবং তা নেয়া হচ্ছে’।
বাঞ্ছারামপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু তৌহিদ বলেন, ‘এক টাকা নেয়ার নিয়ম নেই যেখানে, সেখানে কিভাবে স্কুল কর্তৃপক্ষ ৫/৬ শত টাকা করে নিচ্ছেন। আমরা প্রতিটি স্কুলকে চিঠি দিচ্ছি যারা টাকা নিয়েছেন সে সব টাকা ফেরত দিতে’।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১