শিরোনাম

বাঞ্ছারামপুরে গলিত লাশ উদ্ধার : শোকের মাতম

বাঞ্ছারামপুর প্রতিনিধি : | মঙ্গলবার, ০৭ নভেম্বর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 127 বার

বাঞ্ছারামপুরে গলিত লাশ উদ্ধার : শোকের মাতম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর পৌর এলাকার জগন্নাথপুর গ্রামে একটি বাড়ির দেয়াল নির্মানের কাজ করার সময় ৮ মাস আগে অপহৃত একই গ্রামের মো. শাহজাহানের ছেলে সোবহানিয়া মাদ্রাসার ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র আশিকুল হাসান হৃদয়ের (১২) গলিত লাশের সন্ধান পাওয়া গেছে।
বাঞ্ছারামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অংশু কুমার দেব ও লাশ উদ্ধারকারী পুলিশ কর্মকর্তা এসআই মো. শাহ আলম জানান, ‘লাশের অবস্থা খুবই খারাপ। মুখ দেখে চেনার উপায় নেই। হৃদয়কে কি ভাবে হত্যা করা হয়েছে তা জানার জন্য লাশ দুপুররে দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।’

খোজ নিয়ে জানা গেছে, আজ সকালে রাজমিস্ত্রীরা একটি বাড়ির দেয়াল নির্মানের সময় একটি শিশুর লাশ মাটির গর্তে পোতা অবস্থায় পেলে এলাকায় সাড়া পড়ে যায়। খবর পেয়ে হৃদয়ের মা এসে অর্ধগলিত লাশের হাফপ্যান্টের নমুনা দেখে তিনি তার ছেলেকে সনাক্ত করেন। তখন থেকেই মৃত হৃদয়ের স্বজন সহ তার স্কুলের বন্ধু ও এলাকাবাসীদের মধ্যে কান্নার রোল পড়ে যায়।
হৃদয়ের মা নাজমা বেগম আহাজারী করতে করতে জানান, গত ২০ এপ্রিল মাসে হৃদয়কে অপহরণ করে অপহরণকারীরা মোবাইলে ২০ লাখ টাকা দাবি করে না পেয়ে তাকে হত্যা করে জগন্নাথপুরে মতিন মিয়ার বাড়ির পাশে ফেলে রাখে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপহণের অভিযোগ এপ্রিল মাসেই দায়ের করা ছিলো। সে ভিত্তিতে র‌্যাব ২ জনকে গ্রেফতার ও আদালতে ২ আসামী হৃদয়কে অপহরণের কথা স্বীকার এবং অপহরণকালে ১৪ জন জড়িত ছিলো বলে স্বীকারোক্তি দিলেও হৃদয়কে কি করা হয়েছে তা স্বীকার করেনি গ্রেফতারকৃতরা। গ্রেফতারকৃত আসামীরা এখনো জেলা জেল হাজাতে রয়েছে বলে জানা গেছে।
হৃদয়ের মামা হযরত মিয়া জানান, এখন নতুন করে হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০