শিরোনাম

বাঞ্ছারামপুরে আবারও দুর্ধর্ষ গণ ডাকাতি

বাঞ্ছারামপুর প্রতিনিধি : | বৃহস্পতিবার, ০৮ নভেম্বর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 270 বার

বাঞ্ছারামপুরে আবারও দুর্ধর্ষ গণ ডাকাতি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুরে পুলিশের অবহেলায় আবারও দুর্ধর্ষ গণ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতদল গাছের গুড়ি ফেলে পথরোধ করে ৭টি মাইক্রো আটকিয়ে প্রবাসী ও ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, মোবাইল ফোন সেট সহ কয়েক লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এমন কি গাড়িতে থাকা নারীদেরকে শারীরিক নির্যাতনের চেষ্টা করে।

গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাঞ্ছারামপুর উপজেলার বাহাদুরপুর কবরস্থান সংলগ্ন স্থানে ঢাকা থেকে নবীনগর গামী মাইক্রোবাসে এই ঘটনা ঘটে। গত ১ মাসে এখানে ৩টি দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় এলাকাবাসির মাঝে চরম ডাকাত আতঙ্ক বিরাজ করছে।


বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সালাহ উদ্দিন চৌধুরী জানান, ডাকাতির ঘটনার জন্য গত ৩ দিন ধরে বাহাদুরপুর কবরস্থান এলাকায় পুলিশ টহলে রেখেছি। এসআই হুমায়ুন কবিরের গাফিলতির কারণে হয়তবা এই ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে এসআই হুমায়ুন কবির বলেন, যেখানে ডাকাতি হয়েছে ঐখানে তো আমার ডিউটি ছিল গতকাল রাতে। আমি অন্য একটি কাজে একটু দূরে যাওয়ায় ডাকাতদেরকে ধরতে পারিনি। রাত ১২টার পরে জানতে পেরেছি এখানে ডাকাতি হয়েছে। এদিকে মাইক্রো চালক নবীনগরের আলাউদ্দিন জানান, “এই রোডে ইদানিং ডাকাতি বাইড়া যাওয়ায় আমরা খুব ভয়ে আছি। আমার গাড়ি সহ আরও কয়েকটি গাড়ি থামিয়ে ডাকাইতরা সব লুট কইরা নিয়া গেছে। রাস্তায় কোন পুলিশ ছিল না।”

এ ব্যাপারে দরিকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম স্বপন বলেন, বাহাদুরপুর গ্রামের কবরস্থানগুলোর সামনে গত এক মাসে তিনবার ডাকাতি হয়েছে। আমি প্রশাসনকে বলে রাতে টহল পুলিশের ব্যবস্থাও করিয়েছি। তারপরেও কিভাবে ডাকাতি হয় এটা ভাবতে অবাক লাগে।

উল্লেখ্য, গত অক্টোবর মাসের মাঝামাঝি বাঞ্ছারামপুর উপজেলার দরিভেলানগর মাজার সংলগ্ন স্থানে আরেকটি গণ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছিল।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১