শিরোনাম

ফলোআপঃ-কসবায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় মামলা দায়ের

শফিকুল ইসলাম সোহেল | মঙ্গলবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 214 বার

ফলোআপঃ-কসবায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় মামলা দায়ের

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার পশ্চিম ইউনিয়নের বিলঘর গ্রামে গত রোববার বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। হামলায় আহত কসবা থানার এস. আই মোঃ হারুনুর রশিদ বাদী হয়ে রোববার রাতে সরকারি কাজে বাঁধাদানের অভিযোগ এনে এই মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজাপ্রাপ্ত সাবেক যুবলীগ নেতা ও পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ আলমগীর এবং গ্রেপ্তার হওয়া মোঃ শামীমের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ৪০-৫০ জনকে আসামী করা হয়েছে। হামলাকারিরা ইটপাটকেল ছুড়ে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।


খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কসবার উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ঘটনায় গত রোববার দুপুরে পাঁচজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে কসবার বিভিন্ন এলাকায় পৃথক অভিযান চালানো হয়। এ সময় অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের হোতা উপজেলার আকছিনা গ্রামের বাসিন্দা, কসবা পশ্চিম ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক এবং পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ আলমগীর ও মোঃ শামীম নামে দুইজনকে আটক করা হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রশান্ত বৈদ্যের ভ্রাম্যমাণ আদালত আলমগীরকে এক বছরের কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানা করেন।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের গাড়ি বহর বিলঘর এলাকায় পৌঁছামাত্র মোটরসাইকেলে করা আসা অস্ত্রধারীরা হামলা করে। হামলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদউল আলম, কসবা থানার এস. আই মোঃ হারুনুর রশিদ, হাবিলদার আলী আজম, কনস্টেবল মাহবুবুল, জয়রুফসহ ৫জন আহত হয়। এ সময় বহরে থাকা পুলিশ ১২ রাউন্ড গুলি ছোড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ব্যাপারে কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ লোকমান হোসেন জানান, ভ্রাম্যমাণ আদালতে দন্ডপ্রাপ্ত আলমগীরকে ছাড়িয়ে নিতেই এ হামলার ঘটনা ঘটে। লোকমানসহ দুইজনকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত অন্যান্যদেরকে চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১