শিরোনাম

প্রাণতোষ চৌধুরীর ৮৪ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত

প্রেস বিজ্ঞপ্তি | মঙ্গলবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 138 বার

প্রাণতোষ চৌধুরীর ৮৪ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত

প্রবীণ আলোকচিত্র শিল্পী সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব প্রাণতোষ চৌধুরীর ৮৪ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে সোমবার (১৮.১২.২০১৭) শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ চত্ত ভাষা চত্বরে এক প্রীতি সম্মিলনীর আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার বলেন, সুস্থ সংস্কৃতির চর্চা ও শিল্পের সাধনায় প্রাণতোষ চৌধুরী জীবন উৎসর্গ করেছেন। তাঁর মতন সাদা মনের মানুষ বর্তমান সময়ে বিরল। সাহিত্য একাডেমির সভাপতি জয়দুল হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দীপক চৌধুরী বাপ্পী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হোরায়রাহ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাট্যগোষ্ঠীর সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সোহেল, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব স্বপন রায়, রোকেয়া রহমান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডঃ লোকমান হোসেন, ফাতেমাতুজজোহরা পলি, তফাজ্জল হোসেন জীবন, শামীমা স্মৃতি, সাহিত্য একাডেমির পরিচালক মানবর্দ্ধন পাল, তিতাত ললিতকলা একাডেমির সভাপতি সেহেলি মাসুদ, মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হক, বিষ্ণুপদ দেব, নন্দিতা গুহ, তিতাস আবৃত্তি সংগঠনের পরিচালক মনির হোসেন, নেলী আক্তার, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নজরুল ইসলাম, শেখ জাহাঙ্গীর, উন্নয়নকর্মী আবুল বাশার, মানিক রতন শর্মা, মোঃ নাজিরউদ্দিন প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন সাহিত্য একাডেমির সাধারণ সম্পাদক একেএম শিবলী। আলোচকগণ তাঁদের অভিব্যক্তি ব্যক্ত করার সময় বলেন, প্রাণতোষ চৌধুরী একজন চির-তরুণ মানুষ। তিনি একজন সাদা মনের মানুষ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অন্যতম আলোকিত মানুষ তিনি। তাঁর কোনো শত্রু নাই। দীর্ঘ ৮৪ বছরের জীবনে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে অনেক কিছু দিয়েছেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ইতিহাসের অংশ হয়ে আছেন তিনি। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাংস্কৃতিক অঙ্গনের অভিভাবক তিনি। একজন আলোকচিত্র শিল্পী হিসেবে তিনি বিশেষ খ্যাতি অর্জন করেছেন। তাঁর ক্যামেরায় ধারণকৃত আলোকচিত্র ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ইতিহাসের উপকরণ করেছে। আমরা তাঁর দীর্ঘ আয়ূ কামনা করি। জেলার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রাণতোষ চৌধুরীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০