শিরোনাম

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ

| মঙ্গলবার, ০৬ মার্চ ২০১৮ | পড়া হয়েছে 94 বার

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের মৌড়াইল এলাকায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এক কিশোরীর বাল্যবিয়ে বন্ধ হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাসুদ হোসেন মৌড়াইলের স্টেশন রোড এলাকার একটি বাড়িতে সোমবার (০৫.০৩.২০১৮) বিকেলে অভিযান চালিয়ে এ বিয়ে বন্ধ করেন।


স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুপুরে কসবা উপজেলা সায়েদাবাদ এলাকার আবদুল জলিল খলিফার ছেলে রিফাত চৌধুরীর সাথে স্টেশন রোডের বাড়িটির এসএসসি ফলপ্রত্যাশী ওই কিশোরীর বিয়ের ক্ষণ ঠিক হয়। কিন্তু মেয়েটি প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়ায় স্থানীয় লোকজন বিষয়টি সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সোহেল রানাকে জানান।

তখন সোহেল রানা জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ হোসেনকে জানালে তিনি ওই বাড়িতে যান। ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাসুদ হোসেন বাল্যবিয়ের বিরুদ্ধে আইন ও এই বয়সে বিয়ের কুফল তুলে ধরেন। একই সাথে মেয়ের বাবা-মায়ের কাছ থেকে মুচলেকা আদায় করে বিয়েটি বন্ধ করে দেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ হোসেন বলেন, এসএসসি’র প্রবেশপত্র ও রেজিস্ট্রেশন কার্ডে মেয়েটির বয়স ২০০২ সালের ৬ সেপ্টেম্বর উল্লেখ রয়েছে। সে হিসাবে মেয়েটির বয়স ১৫ বছর ৬ মাস। বাল্যবিয়ে নিরোধক আইন অনুযায়ী প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত কোনো মেয়েকে অভিভাবকরা বিয়ে দিতে পারবে না। মেয়ের বাবা-মায়ের কাছ থেকে মুচলেকা নেয়া হয়েছে। তবে বরপক্ষের কাউকে তখনো বিয়েবাড়িতে দেখা যায়নি।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১