শিরোনাম

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার : | শুক্রবার, ০২ মার্চ ২০১৮ | পড়া হয়েছে 121 বার

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এক অপ্রাপ্ত বয়সের (নাবালক) ছেলের সাথে প্রাপ্ত বয়সী মেয়ের বিয়ে বন্ধ করা হয়েছে। আজ শুক্রবার (০২.০৩.২০১৮) বিকেল চারটার দিকে সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মনিরুজ্জামান পৌর এলাকার চন্ডালখিল গ্রামে অভিযান চালিয়ে এই বিয়ে বন্ধ করেন।

স্থানীয় সূত্র প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার পৌর এলাকার নয়নপুর গ্রামের আবদুল মিয়ার অপ্রাপ্ত বয়সী ছেলে মালম মিয়ার সাথে চন্ডালখিল গ্রামের প্রাপ্ত বয়সের মেয়ের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। বিয়ের শুরুতে মেয়েটি প্রাপ্ত বয়সী নয় স্থানীয় মাধ্যমে জানতে পেরে জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মনিরুজ্জামান ঘটনাস্থলে যান। এ সময় মেয়ের অভিভাবকরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা থেকে নেওয়া মেয়ের জন্মসনদ সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটকে দেখান। সেখানে ১৯৯২ সালে মেয়েটির জন্ম হয় বলে উল্লেখ রয়েছে। পরে সহকারি কমিশনার স্থানীয় চন্ডালখিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মেয়েটির ভর্তির রেজিষ্টার্ড ঘেঁটে দেখতে পান যে, মেয়েটি ওই বিদ্যালয়ে ১৯৯৭ সালে প্রথম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। এসময় ছেলে পক্ষের লোকজনও ২০০৮ সালের পৌরসভার থেকে প্রাপ্ত ছেলের একটি জন্ম সননের ফটোকপি দেখান। ছেলের প্রকৃত বয়স নিয়ে সন্দেহে সহকারি কশিনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মনিরুজ্জামান ছেলের বাবার কাছ থেকে মুছলেকা নিয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন।


জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মনিরুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, ছেলেটিকে দেখতে প্রাপ্ত বয়সী বলে মনে হয়নি আমার কাছে। তাছাড়া তার বয়স সংক্রান্ত প্রকৃত কোনো প্রমাণাদি দেখাতে পারেনি। প্রাপ্ত বয়সের আসল সনদ না দেখানো পর্যন্ত বিয়ে বন্ধের ব্যাপারে স্থানীয় মহিলা কাউন্সিলার সালমা বেগমের কাছ থেকেও একটি প্রত্যয়নপত্র নেয়া হয়েছে। তবে মেয়েটির বয়স ঠিক আছে বলে জানান তিনি।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১