শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে প্রথমবারের মতো সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসুচি’র আওতায় বিভিন্ন সম্মানী ভাতা, উপবৃত্তি প্রবর্তনের মাধ্যমে বাংলাদেশে এক নতুন অধ্যায় সৃষ্টি করেছেন ——————————জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি | শনিবার, ০২ জানুয়ারি ২০২১ | পড়া হয়েছে 67 বার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে প্রথমবারের মতো সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসুচি’র আওতায় বিভিন্ন সম্মানী ভাতা, উপবৃত্তি প্রবর্তনের মাধ্যমে বাংলাদেশে এক নতুন অধ্যায় সৃষ্টি করেছেন ——————————জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে প্রথমবারের মতো সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসুচি’র আওতায় বয়স্ক ভাতা, অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা, বিধবা ও স্বামী নিগৃহিতা মহিলা ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা, প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি প্রবর্তনের মাধ্যমে বাংলাদেশে এক নতুন অধ্যায় সৃষ্টি করেছেন। অতি সম্প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চা-শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়ন কর্মসুচি’র আওতায় এককালীন চেক বিতরন, দলিত, হরিজন, বেদে ও হিজড়া ভাতা ও তাদের সন্তানদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি চালু করেছেন এবং দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ কার্যক্রমও চালু করেছেন।
তিনি আরো বলেন, সমাজসেবা দপ্তরের মাধ্যম ৫২ প্রকার সেবা জনগন পেয়ে থাকেন। এছাড়াও ৬ ধরনের পেশার প্রান্তিক জনগোষ্ঠির জীবন মাননোন্নয়নে এককালিন অনুদান, চিকিৎসা সহায়তা, এতিম ও পথ শিশুদের পুনর্বাসন ও বিনাসুদে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ঋণ কর্মসূচী প্রদান করে সমাজসেবা দপ্তর।

তিনি শনিবার ২রা জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ১১টায় “ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ বির্নিমাণে, সেবা ও সুযোগ প্রাপ্তজনে” এ প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে জাতীয় সমাজসেবা দিবস উপলক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসন, জেলা সমাজসেবা কার্যালয় ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাসমূহের আয়োজনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।


অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মিসেস নায়ার কবির, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রইছ উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও শহর সমাজসেবা কার্যক্রমের প্রকল্প সমন্বয় পরিষদের সভাপতি যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার, সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ একরামউল্লাহ।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ পরিচালক মাহমুদুল হাসান তাপস। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ ফরহাদ হোসেন ভূইয়া, ড্রীম ফর ডিজএবিলিটি’র প্রতিষ্ঠাতা হেদায়েতুল্লাহ আজিজ মুন্না। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন স্বনির্ভর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নির্বাহী পরিচালক এস এম শাহীন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা সমাজের সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য কাজ করার জন্য সমাজসেবা অধিদপ্তরের সকলকে ধন্যবাদ জানান। একইসাথে এই কার্যক্রমকে আরও বেগবান করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানান। পরে সমাজসেবায় বিশেষ বিশেষ অবদানের জন্য শহর সমাজসেবা কার্যক্রমের প্রকল্প সমন্বয় পরিষদের সভাপতি যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জাতীয় অন্ধ কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ শাহ আলম, ড্রীম ফর ডিজএবিলিটি’র প্রতিষ্ঠাতা হেদায়েতুল্লাহ আজিজ মুন্নাকে সম্মাননা স্মারক প্রদান এবং সুবিধাভোগীদের মধ্যে বিভিন্ন ভাতা ও অনুদান প্রদান করা হয়।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১