শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রী-মন্ত্রী-এমপিদের সরকারি সুবিধা নিয়ে প্রচারণার সুযোগ নেই

| বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ | পড়া হয়েছে 81 বার

প্রধানমন্ত্রী-মন্ত্রী-এমপিদের সরকারি সুবিধা নিয়ে প্রচারণার সুযোগ নেই

সংসদ বহাল থাকলেও তফসিল ঘোষণার পর প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, মন্ত্রী, এমপিসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা সরকারি সুবিধা নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় যেতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম।

আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে আজ ১৭ অক্টোবর বুধবার সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।


এমপিদের পদে রেখে লেভেল প্লেইং ফিল্ড তৈরি সম্ভব কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে কবিতা খানম বলেন, আইন সবার জন্য সমান। আইন মানতে হবে। আইন যেহেতু সবার জন্য সমান আমরা সেভাবে প্রয়োগ করতে চাই। সিটি করপোরেশন নির্বাচন আচরণ বিধিমালার মতো জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালায়ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সংজ্ঞায় প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, মন্ত্রী, এমপি সবাই আছেন। তারা সরকারি সুবিধা নিয়ে নির্বাচন প্রচারে যেতে পারবেন না। এটা আগে থেকেই আছে।

তিনি জানান, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালা সংশোধনের কাজ চলছে। আচরণ বিধিতে ছোটোখাটো সংশোধন যেমন নির্বাচনের প্রচারে জীবন্ত প্রাণি ব্যবহার না করা, ডিজিটাল ডিসপ্লে ব্যবহার না করার বিষয় আছে। সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ন্ত্রণের মতো কিছু নেই।

তিনি বলেন, আচরণ বিধিমালা করা হয়েছে মানার জন্যই। কেউ ব্যতয় ঘটালে তার ব্যবস্থাও আইনে আছে।

সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন বিষয়ে তিনি বলেন, সংবিধানকে সামনে রেখে সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এখানে সংসদ বহাল থাকবে না কি থাকবে এটা নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ার নয়। নির্বাচন কমিশন সংবিধান অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালনা করবে এটাই সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য।

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, নির্বাচনে ইসির কর্মকর্তাদের রিটার্নিং কর্মকর্তা করার বিষয়ে ইসিতে সক্রিয় কোনো আলোচনা হয়নি। কমিশন যদি মনে করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১