শিরোনাম

পাকিস্তানের এমন জয় ৯ বছর পর

স্পোর্টস ডেস্ক : | সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 145 বার

পাকিস্তানের এমন জয় ৯ বছর পর

আরব আমিরাতে সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কাকে ৯ উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তান। সফরকারীদের ১০৩ রানে অল আউট করে শুধু ফখর জামানের উইকেট হারিয়ে ম্যাচ শেষ করেছে তারা। দাপুটে জয়ে শ্রীলঙ্কাকে ধবলধোলাই করে ৫-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিল পাকিস্তান। ২০০৮ সালের পর কোনো দ্বিপাক্ষিক সিরিজ এই ব্যবধানে জিতল তারা।
২০০৮ সালে টানা দুই সিরিজে জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশকে ৫-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল পাকিস্তান। এপ্রিলের বাংলাদেশ সিরিজের পর ওয়ানডেতে ৫ বাঁ এর বেশি ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ আরও ১৬টি খেলেছে পাকিস্তান। কিন্তু কোনো সিরিজেই এমন দাপুটে জয় পায়নি। উল্টো ২০১০ সালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ধবলধোলাই হতে হয়েছিল তাদের। আজ সাড়ে নয় বছর পর আরেকটি পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে প্রতিপক্ষকে ধবলধোলাই করল পাকিস্তান।
এর আগে ওয়ানডেতে সর্বনিম্ন রানের বিশ্ব রেকর্ড গড়ার ইঙ্গিত দিচ্ছিল শ্রীলঙ্কা। ২০ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে কাঁপছিল সফরকারীরা। শেষ পর্যন্ত সে লজ্জা এড়িয়েছে, অল আউট হওয়ার আগে ১০৩ রান করেছে শ্রীলঙ্কা।
উসমান খানের বাঁহাতি পেসেই কুপোকাত হয়েছে শ্রীলঙ্কা। ইনিংসের পঞ্চম বলে সাদিরা সামারাবিক্রমকে বোল্ড করে শুরু, উসমান খান থামলেন সপ্তম ওভারের তৃতীয় বলে মিলিন্দা সিরিবর্দনাকে ক্যাচ বানিয়ে। এই ১৭ বলের মাঝেই শ্রীলঙ্কার প্রথম পাঁচ উইকেট তুলে নিয়েছেন এই পেসার। ২০০১ সালের পর এমন বিধ্বংসী স্পেল মাত্র দুবার দেখা গেছে। ২০০৩ বিশ্বকাপে চামিন্দা ভাস ১৬ বলের মধ্যে বাংলাদেশের প্রথম পাঁচ ব্যাটসম্যানকে আউট করেছিলেন। আর ২০১৩ সালে হল্যান্ডের ফন ডার গুগটেন কানাডার পাঁচ ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়েছেন ১৯ বলের মধ্যেই। আজ গুগটেনকেও ছাড়িয়ে গেছেন উসমান।
৩.৩ ওভারের স্পেলে ১২ রানে ৫ উইকেট। ভাসের রেকর্ড কিংবা সর্বনিম্ন ইনিংসের বিশ্ব রেকর্ড—সবকিছুই তখন সম্ভব মনে হচ্ছিল। থিরিমান্নে ও প্রসন্নর ২৯ রানের জুটিতে সর্বনিম্ন ইনিংসের রেকর্ডটা এড়িয়েছে শ্রীলঙ্কা। থিসারা পেরেরার দৃঢ়তায় ১০০ পেরিয়েছে দীনেশ চান্ডিমালের দল। উসমানকেও ৩৪ রানে ৫ উইকেট নিয়ে সন্তুষ্ট হতে হয়েছে।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০