শিরোনাম

‘পচা শামুকে’ পা কাটল দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের

স্পোটর্স ডেস্ক : | শনিবার, ১৯ মে ২০১৮ | পড়া হয়েছে 119 বার

‘পচা শামুকে’ পা কাটল দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের

দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের এবারের আইপিএলটা মোটেও ভালো যাচ্ছে না। হারের বৃত্তেই দলটি ঘুরপাক খাচ্ছে। একের পর ম্যাচ হেরেছে চলেছে তারা। স্বাভাবিকভাবে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে রয়েছে দিল্লি। সেই ‘পচা শামুকেই’ পা কাটল দুর্দান্ত ছন্দে থাকা চেন্নাই সুপাই কিংসের। শ্রেয়াস আয়ারের দলের কাছে ৩৪ রানে হেরে গেছে রাজারা।

দিল্লির জন্য ম্যাচটি ছিল শুধু আনুষ্ঠানিকতার। জয় কিংবা পরাজয় তাদের ভাগ্য বদলে কোনো প্রভাব ফেলত না। জিতলেও থাকতে হতো পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে। সেই ম্যাচেই জ্বলে উঠল তারা। হারিয়ে দিল চেন্নাইকে। এই হারে পয়েন্ট টেবিলের সিংহাসনে ওঠা হাতছাড়া হলো ধোনি বাহিনীর।


টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে দিল্লী ডেয়ারডেভিলস। তবে তাদের শুরুটা ভালো ছিল না। সূচনালগ্নেই ফিরে যান পৃথ্বী শ। এরপর আয়ারকে নিয়ে হাল ধরেন রিশভ পান্ট। ভালো জুটি গড়ে শুরুর ধাক্কা সামাল দেন তারা। দলীয় ৭৮ রানে লুঙ্গি এনগিডির শিকার হন আয়ার। এতে ভাঙে ৫৪ রানের জুটি।

সঙ্গী হারিয়ে টিকতে পারেননি পান্টও। ২ বল পরই সেই এনগিডির থাবা খান তিনি। ফেরার আগে করেন ৩ চার ও ২ ছক্কার ২৬ বলে ৩৮ রান। দুই থিতু ব্যাটসম্যান ফিরে গেলে চাপে পড়ে দিল্লী। দলকে উদ্ধারের আগেই ফিরে যান গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। কিছুক্ষণ পরই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন অভিষেক শর্মা। ৯৭ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে খাদের কিনারায় চলে যায় দলটি।

শেষদিকে হাল ধরেন বিজয় শঙ্কর ও হার্শাল প্যাটেল। ষষ্ঠ উইকেটে ৩২ বলে ৬৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন দু’জন। তাদের জুটিতে ভর করে ১৬২ রানের লড়াকু পুঁজি পায় দিল্লী। ২ চার ও ২ ছক্কা হাঁকানো বিজয় শঙ্কর ২৮ বলে ৩৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। অপর প্রান্তে থাকা হার্শাল প্যাটেল ১৬ বলে করেন ৩৬ রান। তার এই বিস্ফোরক ইনিংসে ছিল ৪ ছক্কার বিপরীতে ১ চার।

চেন্নাইয়ের হয়ে লুঙ্গি এনগিডি নেন ২ উইকেট। ১টি করে নেন চাহার, জাদেজা ও ঠাকুর।

জবাবে চেন্নাইয়ের শুরুটা হয় আশা জাগানিয়া। উদ্বোধনী জুটিতে ৪৬ রান তোলেন শেন ওয়াটসন ও আম্বাতি রাইডু। এক প্রান্তে আম্বাতি রানের চাকা সচল রাখলেও ওয়াটসন ছিলেন কিছুটা মন্থর। ধীরলয়ে ব্যাটিং করা অজি ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন অমিত মিশ্র।

এরপর ক্রিজে বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি রাইডু। ঝড়ো অর্ধশতক হাঁকানোর পরই হার্শাল প্যাটেলের শিকার হয়ে ফেরেন তিনি। ২৯ বলে ৪টি করে চার ও ৪ ছক্কায় ৫০ করে ফিরলে চাপে পড়ে চেন্নাই। ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার আগেই ফিরে যান সুরেশ রায়না। তার বিদায়ের পর পরই ফিরে যান বিলিংস। এতে মহাচাপে পড়ে দলটি।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১