শিরোনাম

নায়ক হতে দিলেন না কাটিং

স্পোর্টস ডেস্ক : | শনিবার, ১৪ এপ্রিল ২০১৮ | পড়া হয়েছে 323 বার

নায়ক হতে দিলেন না কাটিং

প্রথম দুই ওভারে ২০ রান দিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। মোস্তাফিজ নিজের দ্বিতীয় ওভারে ১০ রান দিয়ে এক উইকেট পান। এছাড়া নিজের প্রথম ওভারে দেন আরো ১০ রান। মুম্বাইয়ের অল্প রানের পুঁজিতে শুরুতে কেউ ভালো বোলিং করতে পারেননি। কিন্তু মোস্তাফিজ নিজের দ্বিতীয় স্পেলে সবাইকে সেই পুরনো মোস্তাফিজের কথাই মনে করিয়ে দিলেন। মুম্বাই অধিনায়ক ১৬তম ওভারে বল তুলে দিলেন ফিজের হাতে। দারুণ বল করে ফিজ দিলেন মাত্র ৩ রান। এরপর ১৯তম ওভারে বল হাতে নিয়ে ২ উইকেট তুলে নিলেন, দিলেন মাত্র ১ রান।

শেষ ওভারে হায়দরাবাদের দরকার ছিল ১১ রান। হাতে উইকেট মাত্র একটি। কিন্তু ‘ডেথ ওভারে’র অন্যতম সেরা বোলার খ্যাত বেন কাটিং সেই রান আটকাতে পারলেন না। শেষ বলে জয়ের জন্য দরকার ছিল ১ রান, যা তুলে নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন হায়দরাবাদের শেষ ব্যাটসম্যান। কাটিংয়ের কারণে ম্যাচের নায়ক হতে হতেও পারলেন না মোস্তাফিজ।


মোস্তাফিজ নিজের দ্বিতীয় ওভারে ১০ রান দিয়ে এক উইকেট পান। এছাড়া নিজের প্রথম ওভারে দেন আরো ১০ রান। কিন্তু শেষ দুই ওভারে মাত্র ৪ চার দিয়ে ২ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। ১৮তম ওভারে বুমরাহও দারুণ বল করেন। এর আগে ২৩ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন মারাকান্দে। মোস্তাফিজ-মারাকান্দে এবং বুমরাহর প্রথম দিকের এক উইকেটে স্বল্প পুঁজিতে হায়দরাবাদকে ভালোই বেগ দিয়েছে মুম্বাই। কিন্তু প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও অন্য বোলারদের ভুলে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হলো মুম্বাইকে।

এর আগে টস হেরে প্রথম ব্যাট করে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৭ রান তোলে মুম্বাই। দলের পক্ষে সূর্য কুমার যাদব ও পোলার্ড সর্বোচ্চ ২৮ করে রান করেন।

রান তাড়ায় ৬২ রানে প্রথম উইকেট হারায় হায়দরাবাদ। এরপর তাদের আর কোনো ব্যাটসম্যান দাঁড়তে পারেননি। তবে দীপক হুদা একপ্রান্তে লড়ে গেছেন। ৩২ রানে অপরাজিত থাকা এই ব্যাটসম্যান শেষ ওভারের প্রথম বলেই ছক্কা মেরে দলকে জয়ের পথে নিয়ে যান। এরপর ধীরে চলো নীতিতে এক এক করে রান নিয়ে জয় ছিনিয়ে নেয় হায়দরাবাদের শেষ দুই ব্যাটসম্যান।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১