শিরোনাম

নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবার মানোন্নয়ন হয়েছে

নাসিরনগর প্রতিনিধি | মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯ | পড়া হয়েছে 161 বার

নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবার মানোন্নয়ন হয়েছে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া,জেলার নাসিরনগর ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আর আগের মতো এলোমেলো অবস্থানে নেই। পর্যাপ্ত পরিমান সরঞ্জাম না থাকলেও আন্তরিকতা ও দক্ষতা দিয়ে একটি প্রতিষ্ঠানকে কতটুকু এগিয়ে নেওয়া যায় তার বাস্তব উদাহরণ নাসিরনগর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

বর্তমান উপজেলা নাসিরনগরের নবাগত স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ অভিজিৎ রায় এখানে আসার পর থেকেই অনেক অচল ইউনিট সচল , ডাক্তার, নার্স ও কর্মচারীদের মধ্যে জবাবদিহিতা নিশ্চিত, তাৎক্ষণিক রোগীদের সেবা প্রদানের ব্যবস্থা হাতে নেওয়া হয়েছে। তবে, পর্যাপ্ত আসবাবপত্র, ঔষধ, চিকিৎসা সরঞ্জামাদি না থাকায় অধিকতর জটিল রোগিদের শতভাগ চিকিৎসা প্রদান সম্ভব হচ্ছে না। ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটিতে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত রোগী প্রায় প্রতিদিনই আসছে। লক্ষ্য করে দেখা গেছে অনেক ক্ষেত্রে রোগীদের অস্থায়ী শয্যা হিসেবে ফ্লোরে এমনকি ডাক্তারের চেম্বারেও শয্যা করে ভর্তি করা হচ্ছে। রোগীদের প্রতি ডাক্তার ও নার্সদের ব্যবহার ও আন্তরিকতার লক্ষ্য করার মতো। এছাড়া কর্মচারীদের কর্মবড়তা দারুণ আকর্ষিত করে।


এখানে সিঁড়ি বেয়ে উঠার সময় চোখে পড়বে কোন ইউনিটে কি কি ঔষধ, ঔষধের মেয়াদ, পরিচর্যায় কে কখন থাকবে এমন তথ্য দেয়ালে সেঁটে দেওয়া আছে। ময়লা আবর্জনা, পরিত্যক্ত জিনিসপত্র রাখার জন্য আলাদা আলাদা ডাস্টবিনের ব্যবস্থা আছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার সাথে কথা বলে জানতে পারলাম প্রসূতি মায়েদের জন্য বিভিন্ন সুব্যবস্থার কথা। তিনি জানালেন প্রসূতি মায়েদের নিরাপদ ডেলিভারি ছাড়াও তাদের আসা যাওয়ার ভাড়াটাও তারা নিজস্ব ফান্ড থেকে দিয়ে দেন। এই ফান্ড তারা নিজেরাই তৈরী করেছেন।

এছাড়া ডেঙ্গু রোগীদের জরুরি সেবা প্রদানের জন্য তারা ডেঙ্গু ইউনিট খুলেছেন। সেখানে গিয়ে ৯ জন রোগী ভর্তি পাওয়া যায়। তাদের খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে তারা বর্তমানে অনেকই সুস্থ আছে। রোগীরা জানায় হাসপাতালের ডাক্তার – নার্সরা সার্ক্ষনিক তাদের খোঁজ খবর নিচ্ছেন। হাসপাতালের প্রত্যেকটা অংশ বেশ পরিষ্কার পরিছন্ন রাখা হয়েছে। তবে হাসপাতালের সামনে জমে থাকা কাদা পানির ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ অভিজিৎ রায় বলেন এগুলো সরানোর ব্যবস্থা নেয়া হচ্চে।খুব শিগগিরই এগুলো সরানো হবে বলে জানান, এ কর্মকর্তা।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১