শিরোনাম

নাসিরনগরে নিবন্ধন ছাড়া বাল্য বিবাহের অভিযোগ

নাসিরনগর ব্রাহ্মণবাড়িয়া ; | রবিবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৬ | পড়া হয়েছে 525 বার

নাসিরনগরে নিবন্ধন ছাড়া বাল্য বিবাহের অভিযোগ

নিবন্ধন ছাড়া বাল্য বিবাহের অভিযোগ প্রমাণিত। দীর্ঘদিনও নেয়া হয়নি আইনি ব্যবস্থা। কাজী নুরুল ইসলামের খুঁটির জোর কোথায়? এ নিয়ে জনমনে চলছে নানা জল্পনা, কল্পনা। জেলার নাসিরনগর উপজেলার ০৩নং কুন্ডা ইউনিয়নের কাজী নুরুল ইসলাম ও তার সহকারী শাহ জামালের বিরুদ্ধে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে নিবন্ধন ছাড়া বাল্য বিবাহের অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হলেও দীর্ঘদিনেও নেয়া হয়নি কোন আইনি ব্যবস্থা। এ বিষয়ে ১৬ জুন ২০১৪ তারিখে কুন্ডা সচেতন নাগরিক সমাজ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর এক লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু হয়। তদন্তে তার সহকারীর বিরুদ্ধে ৫টি ও তার বিরুদ্ধে ২৩টি বাল্য বিবাহের অভিযোগ প্রমাণিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উনিঅ/নাসির ২০১৪/৬৮৩নং স্মারকে অভিযুক্ত কাজীর বিরুদ্ধে মুসলিম পারিবারিক বিধান মতে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা সাব-রেজিষ্ট্রার ও উপজেলা সাব-রেজিষ্ট্রার বরাবর লিখিত প্রতিবেদন দাখিল করেন। প্রতিবেদন দাখিলের দুই বছর অতিবাহিত হলেও তাদের বিরুদ্ধে কোন রূপ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় বীর দর্পে চলছে বাল্য বিবাহের কাজ। এ বিষয়ে আবারও সাইফুল ইসলাম,রহমত আলী, জিয়াউল ইসলাম গংরা মিলে মাননীয় সচিব মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়। আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় আর জেলা প্রশাসক বরাবর আবারো লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। এ বিষয়ে জানতে চেয়ে কাজী নুরুল ইসলামের মোবাইল ফোনে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেজিষ্ট্রারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া  যায়।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০