শিরোনাম

নাসিরনগরে আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহ অভিযান অনুষ্ঠিত

নাসিরনগর প্রতিনিধি : | বৃহস্পতিবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | পড়া হয়েছে 313 বার

নাসিরনগরে আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহ অভিযান অনুষ্ঠিত

গতকাল ৩১ জানুয়ারি বুধবার বেলা ১২ টায় নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে তৃণমূল পর্যায়ে সদস্য সংগ্রহ অভিযান ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অসীম কুমার পালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক পৌর চেয়ারম্যান আল মামুন সরকার। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মজিবুর রহমান বাবুল, নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান এ. টি. এম মনিরুজ্জামান সরকার, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও ভাইস চেয়ারম্যান অঞ্জন কুমার দেব, কুমিল্লা ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও নাসিরনগর সৈয়দ ফাতেমা আক্তার মহাবিদ্যালয়ের (প্রস্তাবিত) প্রতিষ্ঠাতা সৈয়দ এহসানুল হক, সাবেক সাংসদ এস এম সাফি মাহমুদ, আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠণিক সম্পাদক আদেশ চন্দ্র দেব, দপ্তর সম্পাদক সুজিত কুমার চক্রবর্তী। অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন গুনিয়াউক ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম ছামদানী পিয়ারু, বুড়িশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান এ টি এম মোজাম্মেল হক সরকার মুকুল, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক নাসির উদ্দিন রানা, যুগ্ম আহবায়ক অমর ভট্টাচার্য্য সুমন ও মোস্তাক আহমেদ। অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠণিক সম্পাদক সৈয়দ লিয়াকত আব্বাস টিপু।
বক্তারা বলেন, ২৭ জানুয়ারি ছিল আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহ অভিযান। ওই দিন কেন্দ্র থেকে ফোন আসে ২৭ জানুয়ারী প্রয়াত মন্ত্রী এডঃ ছায়েদুল হকের চল্লিশা। তাই সদস্য সংগ্রহ অভিযানটি বাতিল করে আজকে করা হয়েছে। কিন্তু দেখা গেছে ২৭ জানুয়ারি ছায়েদুল হকের চল্লিশার পরিবর্তে ওই দিন অনুষ্ঠিত হয় তার স্ত্রী আলহাজ্ব দিলশাদ আরা বেগম মিনুর নির্বাচনী প্রচারণা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। ওই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সদর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসেম (বহিস্কৃত ও মন্দির ভাঙ্গা মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী), উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বেলায়েত (রাজাকার সন্তান), হরিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোঃ ফারুক মিয়া (বহিস্কৃত ও মন্দির ভাঙ্গা মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী ও রাজাকার সন্তান), চাপড়তলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী সুরুজ আলী (বহিস্কৃত ও মন্দির ভাঙ্গা মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী), যুবলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম (রাজাকার সন্তান)কে নিয়ে করা হয়েছে এ অনুষ্ঠান। বক্তারা বলেন, সদস্য সংগ্রহ অভিযানের পরিবর্তে মন্ত্রী পতœী আওয়ামী লীগ থেকে বহিস্কৃত ও মন্দির ভাঙ্গার মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী ও রাজাকার সন্তানদের নিয়ে গণসংযোগ ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান করে। এতে উপজেলা বাসীর মনে ব্যাপক মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। পরে নতুন ১০ জনকে সদস্য আওয়ামী লীগের সংদস্য সংগ্রহ অভিযান উদ্বোধন ও কয়েকজনের সদস্য পদ নবায়ন করা হয়।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১