শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সহায়তায়

দুই মাস পর স্বজনের কাছে

স্টাফ রিপোর্টার | রবিবার, ২৬ মে ২০১৯ | পড়া হয়েছে 240 বার

দুই মাস পর স্বজনের কাছে

দীর্ঘ ৫৫ দিন পর অবশেষে স্বজনের কাছে ফিরলেন খোদেজা বেগম-(৭৫)। গত শনিবার (২৫-মে) ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানা থেকে বৃদ্ধাকে নিয়ে যান তাঁর ছেলে, মেয়েসহ অন্যান্য স্বজনরা। পুলিশের সহযোগিতায় স্বজনদের দেখা পান তিনি।
খোদেজা বেগমের বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নুরপুর গ্রামে। বয়সের ভারে ন্যুজ খোদেজা বেগম মাঝে মাঝে হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

গত ৩১ মার্চ কাউকে কিছু না বলে নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে পড়েন। পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনে অজ্ঞান অবস্থায় পাওয়া যায় তাঁকে। সেখান থেকে ঠাঁয় হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে।


পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, গত ৩১ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনে খোদেজা বেগম অজ্ঞান অবস্থায় পড়েছিলেন। রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার পুলিশের সহযোগিতায় তাঁকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। দীর্ঘ দিন তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন। ধীরে ধীরে তিনি সুস্থ হয়ে উঠলে নাম-ঠিকানা আবছা আবছা বলতে থাকেন।

এ অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার সদর হাসাপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি থানা পুলিশকে লিখিতভাবে অবহিত করেন। পুলিশের চেষ্টায় অবশেষে স্বজনদের খোঁজে পান খোদেজা বেগম।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) ধর্মজিৎ সিনহা জানান, ওই বৃদ্ধার সাথে কথা বলে ঠিকানা সম্পর্কে কিছুটা অবহিত হওয়া যায়। পরে বিষয়টি শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে পুলিশ ওই বৃদ্ধার পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে স্বজনদেরকে খবর দেন। স্বজনরা শনিবার এসে ওনাকে নিয়ে যান। এ সময় হাসপাতাল ও থানায় আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

খোদেজা বেগমের ছেলে মধু মিয়া বলেন, ‘মাকে আমরা অনেক দিন ধরেই খুঁজছিলাম। থানা পুলিশকেও বিষয়টি অবহিত করি। পরে পুলিশের মাধ্যমেই মায়ের খোঁজ পাই। মাকে খোঁজে পেয়ে আমরা খুবই খুশি। বয়সের ভারে তিনি মানসিকভাবে কিছুটা দুর্বল।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১