শিরোনাম

তিন ছাত্রীকে অভিভাবকের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে : উপাচার্য ড. মো. আক্তারুজ্জামান

বিশেষ প্রতিনিধি : | শুক্রবার, ২০ এপ্রিল ২০১৮ | পড়া হয়েছে 81 বার

তিন ছাত্রীকে অভিভাবকের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে : উপাচার্য ড. মো. আক্তারুজ্জামান

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কবি সুফিয়া কামাল হল থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে ছাত্রীদের বের করে দেওয়া হয়নি, তাদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আক্তারুজ্জামান।

তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে তিন ছাত্রীকে তাদের অভিভাবকের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। তাদের বের করে দেওয়া হয়নি।


আজ শুক্রবার (২০.০৪.২০১৮) সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন উপাচার্য ড. মো. আক্তারুজ্জামান।

এর আগে, কবি সুফিয়া কামাল হল প্রশাসনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে হলের কয়েকজন ছাত্রীকে হল থেকে জোরপূর্বক বের করে দেওয়া হয়েছে।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে ভুক্তভোগী এক ছাত্রী জানান, রাতে ১০ জনেরও বেশি ছাত্রীকে হল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। তাদেরকে হল ছাড়তে বাধ্য করা হয়। মেয়েদের মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে চেক করা হয়। রাতে বাড়িতে ফোন দিয়ে অভিভাবককে আসতে বলা হয়।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, গত ১০ এপ্রিল ফেসবুকে ভুয়া আইডি থেকে গুজব ছড়ানোর ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এই ছাত্রীদের বের করে দেওয়া হয়েছে।

তবে ঠিক কতজন ছাত্রীকে হল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে, সে সম্পর্ক শুক্রবার সকাল পর্যন্ত সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

ছাত্রীদের হল থেকে বের করে দেওয়ার খবর জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার রাত দুইটার দিকে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন ও যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুরু সুফিয়া কামাল হলের সামনে উপস্থিত হন।

সে সময় তারা শুক্রবার বিকেলে দেশে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা দেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০