শিরোনাম

সাড়ে তিনঘন্টা অপেক্ষার পর ভুল ঘোষণায়

ট্রেনে চড়তে পারেন নি যাত্রীরা!

স্টাফ রিপোর্টার | রবিবার, ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 332 বার

ট্রেনে চড়তে পারেন নি যাত্রীরা!

নির্ধারিত সময়ের সাড়ে তিনঘন্টা পর ট্রেন এলেও উঠতে পারেন নি যাত্রীরা! কর্তৃপক্ষের ভুল ঘোষণায় অন্তত ৩০-৪০ জন যাত্রী এমন বিড়ম্বনার শিকার হয়েছেন। ঘটনাটি গত শনিবার (৩১আগস্ট ২০১৯) বিকেলে আখাউড়া রেলওয়ে জংশন স্টেশনের।

যাত্রীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা অভিমুখী চট্টলা এক্সপ্রেস ট্রেন (৬৭ আপ) বেলা পৌণে একটায় আখাউড়া থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার কথা। ট্রেনটি গতকাল প্রায় তিন ঘন্টার মতো বিলম্বে আখাউড়ায় আসে। ট্রেন আসার আগ মুহুর্তে স্টেশনের মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়, চট্টলা এক্সপ্রেস দুই নম্বর লাইনে ও একই পথের কর্ণফুলী এক্সপ্রেস তিন নম্বর লাইনে এসে দাঁড়াবে।


বেলা পৌণে চারটার দিকে চট্টলা এক্সপ্রেস তিন নম্বর লাইন থেকে ছেড়ে যায়। কিন্তু ঘোষণা অনুযায়ি ট্রেনটি কর্ণফুলি এক্সপ্রেস মনে করে চলার যাত্রীরা এতে উঠেন নি। ট্রেনটি ছেড়ে যাওয়ার পর বিভিন্নজনের আলোচনা থেকে যাত্রীরা বিষয়টি অবহিত হয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তাঁরা স্টেশন মাস্টারকে বিষয়টি অবহিত করেন।

ট্রেনে উঠতে না পারা আখাউড়া পৌর এলাকার বড়বাজারের শামীমুর রহমান শিশির জানান, আমাদের সামনে দিয়ে ট্রেন গেলেও ভুল ঘোষণার কারণে উঠতে পারি নি। স্টেশন মাস্টার আমাদেরকে জানিয়েছেন একই টিকিটে মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেনে চড়ার ব্যবস্থা করে দিবেন। দেরি হয়ে যাবে বলে ঢাকা যাওয়া বাতিল করেছি।
পৌর এলাকার রাধানগরের আজাদুল ইসলাম বলেন, ‘চট্টলা ট্রেন আসার আগে মাইকে জানানো হয় দুই নম্বর লাইনে আসবে ও কর্ণফুলি আসবে দুই নম্বরে। সেই অনুযায়ি আমরা অপেক্ষা করছিলাম। কিন্তু চট্টলা ট্রেনটি তিন নম্বরে আসায় আমরা ঘোষণা অনুযায়ি কর্ণফুলি এক্সপ্রেস ভেবে ট্রেনে উঠিনি। ট্রেন বিলম্ব হওয়ার পরও যাবো না ভেবে চেষ্টা করেও টিকিট ফেরত দিতে পারি নি। এখন আবার টিকিট কেটে যেতে হচ্ছে।’

আখাউড়া মোগড়া ইউনিয়নের কর্ণেল বাজারের মো. মেহেদী হাসান বলেন, ‘আমার মতো ৩০-৪০ জন যাত্রী ট্রেনে উঠতে পারেন নি। সংশ্লিষ্টদের গাফিলতির কারণে এমনটি হয়েছে। আমাদেরকে মহানগর ট্রেনে যাওয়ার সুযোগ করে দিলেও সিটে বসে যেতে পারবো না বলে ভোগান্তি হবে।’

আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশনের সুপারিনটেনডেন্ট মো. খলিলুর রহমান বলেন, ‘চট্টলা এক্সপ্রেস ট্রেনটি দুই নম্বর লাইনে আসার ঘোষণা দিলেও পয়েন্টস এর যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে তিন নম্বর লাইনে আনা হয়। অপেক্ষমান কিছু যাত্রী কর্ণফুলি এক্সপ্রেস ট্রেন ভেবে এটাতে উঠেন নি। সংশ্লিষ্ট লোক না পাওয়ায় এ বিষয়ে পরবর্তীতে মাইকিং করা সম্ভব হয় নি। যারা চট্টলায় যেতে পারেন নি তাদেরকে মহানগর এক্সপ্রেসে তুলে দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০