শিরোনাম

যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠার বার্ষিকী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

জ্বালাও পোড়াও করে জনগণের সরকার ও রাষ্ট্রকে যারা অস্থিতিশীল করে তুলতে চায় তাদের প্রতিহত করা হবে ——————–র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি | শুক্রবার, ১৩ নভেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 161 বার

জ্বালাও পোড়াও করে জনগণের সরকার ও রাষ্ট্রকে যারা অস্থিতিশীল করে তুলতে চায় তাদের প্রতিহত করা হবে  ——————–র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেছেন, দেশের দূর্দিনে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে টিকিয়ে রাখতে যেসকল যুব নেতৃত্ব, ছাত্র নেতৃত্ব দেশের জন্য কাজ করে গেছেন তাদের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর পুত্র শহিদ শেখ ফজলুল হক মনি অন্যতম। যার হাত ধরে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আমার তাঁর হাত থেকে অস্ত্র নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহণ করার সৌভাগ্য হয়ে ছিলো। দেশের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক অন্দোলনে যুবলীগের অনেক ত্যাগ ও সংগ্রাম রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ৭৫ এর পরে স্বৈরাচারী মোস্তাক ও জিয়ার আমলে যারা নিহত হয়েছে তাদের মধ্যে যুবলীগের অনেক নেতা কর্মী রয়েছে। বর্তমান যুবলীগ সকল শহীদদের থেকে আদর্শের শক্তি নিয়ে আরো সামনের দিকে এগিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি (১৩ নভেম্বর ২০২০) শুক্রবার বিকালে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষা চত্বরে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের গৌরবময় ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় একথা বলেন। বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, জ্বালাও পোড়াও করে জনগণের সরকার ও রাষ্ট্রকে যারা অস্থিতিশীল করে তুলতে চায় অতিতের মত বর্তমানেও যুবলীগের নেতৃত্বে তাদের প্রতিহত করা হবে। সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ এবং মাদকাসক্তদের সাথে বঙ্গবন্ধুর আর্দশের অনুসারী শেখ হাসিনার সৈনিকদের কোন সর্ম্পক থাকতে পারে না হুসিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি যুবলীগ নেতা কর্মীদের সকল প্রকার সংকীর্ণতার উর্দ্ধে থেকে দেশের জন্য, দলের জন্য কাজ করে যাওয়ার আহবান জানান।


আলোচনা সভায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি অ্যাডঃ শাহানূর ইসলাম এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস এর সঞ্চালনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাজী তাজ মোঃ ইয়াছিন, সহ-সভাপতি, পৌর মেয়র মিসেস নায়র কবির, সহ-সভাপতি মুজিবুর রহমান বাবুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম মহিউদ্দিন খান খোকন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি এডঃ মাহবুবুল আলম খোকন, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোঃ মুসলিম মিয়া প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা যুবলীগের বিভিন্ন সময়ে যারা নেতৃত্ব দিয়েছেন তাদের সম্মাননা প্রদান করা হয়। সমাবশে জেলার সকল উপজেলা থেকে কয়েক হাজার নেতা কর্মী মিছিল নিয়ে অংশ গ্রহণ করেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১