শিরোনাম

জেলা তথ্য অফিসের প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার : | শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 145 বার

জেলা তথ্য অফিসের প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত

জেলা তথ্য অফিসের ব্যবস্থাপনায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উদ্যোগ সমূহের ব্র্যান্ডিং, বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারের অর্জিত সফলতা ও উন্নয়ন ভাবনা, টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য সমূহ (এস ডি জি), ভিশনঃ ২০২১ এর লক্ষ্য ও অর্জনসমূহ এবং সন্ত্রাসও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ বিষয়ক এক প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।

প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠানে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


অনুষ্ঠানের শুরুতেই জেলা তথ্য কর্মকর্তা দীপক চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মাই টিভি জেলা প্রতিনিধি আ.ফ.ম কাউসার এমরান, তিনি বলেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় ও দূরদৃষ্টি সম্পন্ন নেতৃত্বে সরকার ২০২১ সালের মধ্যে দেশের সকল নাগরিককে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছেন এবং এরই মধ্যে জাতিকে লোডশেডিং এর বিড়ম্বনা থেকে মুক্ত করেছে।
বিশেষ অতিথি ইত্তেফাক ও বিটিভি জেলা প্রতিনিধি মোহাম্মদ আরজু বলেন- মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উদ্যোগ সমূহের ব্র্যান্ডিং সফলভাবে বাস্তবায়ন হলে দেশ ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালে একটি উন্নত দেশে পরিনত হবে।

বিশেষ অতিথি প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সৈয়দ মিজানুর রেজা বলেন-সরকার সন্ত্রাস ও জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছে। অচিরেই এদেশ থেকে জঙ্গি গোষ্ঠি সমূলে বিতাড়িত হবে।

প্রধান অতিথি ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি খ.আ.ম রশিদুল ইসলাম বলেন- শিশু মৃত্যুর হার ও মাতৃমৃত্যুর হার হ্রাসে এমডিজি পুরস্কার ২০১০ সালে প্রধানমন্ত্রী অর্জন করেন এবং অর্থনৈতিক সাফল্যসূচক বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। তিনি বলেন, রূপকল্পের বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক, প্রগতিশীল ও উদার গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের স্বপ্ন। যেখানে নিশ্চিত হবে সামাজিক ন্যায়বিচার, নারীর অধিকার ও সুযোগের সমতা, আয়-ব্যয় ও দারিদ্র্য নেমে আসবে ন্যূনতম পর্যায়ে, সবার জন্য শিক্ষা ও স্বাস্থ্য অধিকার নিশ্চিত হবে, ব্যাপকভাবে বিকশিত হবে মানুষের সৃজনশীলতা ও সক্ষমতা, সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা পাবে, হ্রাস পাবে সামাজিক বৈষম্য, প্রতিষ্ঠা পাবে জলবায়ুর পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট বিপর্যয় মোকাবেলার সক্ষমতা। তথ্য প্রযুক্তিতে বিকশিত হয়ে বাংলাদেশ পরিচিত হবে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে তাছাড়া তিনি বলেন – যে দেশ যত দূত ইনফরমেশন হাইওয়ে যুক্ত হবে, সে দেশ তত অর্থনৈতিক ভাবে চাঙ্গা হবে। বাংলাদেশ এ ক্ষেত্রে গুরুত্ব দিচ্ছে। তথ্য প্রযুক্তির কল্যাণেই আজ বাংলাদেশ ‘তলাহীন ঝুঁড়ি থেকে ডিজিটাল বাংলাদেশের মর্যাদা পাচ্ছে’। বিটি আর সি এর তথ্য মতে ৬ কোটি ১২ লাখ লোক ইন্টারনেট ব্যবহার করছে (মার্চ’২০১৬)। এছাড়া উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মোঃ আশিকুল ইসলাম, মোজাম্মেল চৌধুরী, মোঃ মাফুকুর রহমান জ্যাকি, আজিজুর রহমান পায়েল, মোঃ নিয়ামুল ইসলাম, ইফতেয়ার উদ্দিন রিফাত সহ অন্যান্য সাংবাদিকগণ।

সমাপনী বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের সভাপতি জেলা তথ্য কর্মকর্তা দীপক চন্দ্র দাস।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১