শিরোনাম

জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে ২৫ মার্চ জাতীয় গণহত্যা দিবস উদযাপন

| রবিবার, ২৫ মার্চ ২০১৮ | পড়া হয়েছে 121 বার

জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে ২৫ মার্চ জাতীয় গণহত্যা দিবস উদযাপন

আজ রবিবার (২৫.০৩.২০১৮) সকাল ১১ টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে ২৫ মার্চ জাতীয় গণহত্যা দিবস উপলক্ষে সাবেরা সোবহান বালিকা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে আলোচনা সভা, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা তথ্য অফিসার দীপক চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল রেজাউল করিম, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার (সাবেক) আলহাজ্ব আবু হোরায়রাহ,সাবেরা সোবহান বালিকা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নুরুজ্জামান চৌধুরী, সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ হারুন অর রশিদ, স্বনির্ভর এর নিবাহী পরিচালক এস.এস শাহীন, সহকারী শিক্ষক মোঃ আব্দুর রহিম, মোঃ আলাউদ্দিন, মোঃ শফিকুর রহমান প্রমুখ।


প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান বলেন ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালো রাতে জেনারেল টিক্কা খানের নেতৃত্বে ‘অপারেশন সার্চ লাইট’ নামে পরিচালিত সামরিক অভিযান ছিল পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর হিংস্রতা ও বর্বরতার চরম বহি:প্রকাশ। তিনি এই দিবসটি বাঙালির জীবনে এক ভয়াবহ দিন। সেই কালো রাতে পাকিস্তানী সেনাবাহিনী কাপুরুষের মতো রাতের অন্ধকারে পাশবিক হিংস্রতা নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে ঘুমন্ত বাঙালির উপর। সামরিক শাসক জেনারেল ইয়াহিয়ার নির্দেশে জেনারেল টিক্কা খানের নেতৃত্বে ‘অপারেশন সার্চ লাইট’ নামের সামরিক অভিযানে সংগঠিত হয় ইতিহাসের জঘন্যতম নির্মম গণহত্যা। তাই অন্য যে কোনো দিনের চেয়ে এই দিনটি শুধু আমাদের কাছেই নয়, বিশ্বের গণহত্যার ইতিহাসেও এক উদাহরণযোগ্য স্মরণীয় দিন। পাকিস্তানী সেনাবাহিনী নিরস্ত্র বাঙালিদের উপর সশস্ত্র হামলা করে এবং দীর্ঘ ৯ মাস পাকিস্তানী সামরিক শাসকদের সহযোগিতায় গঠিত রাজাকার, আল শামস, আলবদর বাহিনী যৌথভাবে বাঙালিদের নৃশংসভাবে হত্যা করে এবং মা বোনের সম্ভ্রম হানি করে।

পরিশেষে জেলা তথ্য অফিসার দীপক চন্দ্র দাস সমাপনী বক্তব্য প্রদান করেন।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১