শিরোনাম

জেলা ছাত্রলীগের ৫ নেতার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান

স্টাফ রিপোর্টার : | বুধবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 175 বার

জেলা ছাত্রলীগের ৫ নেতার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান

১৬ ডিসেম্বর স্মৃতিসৌধে সংঘটিত একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর হুসেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাদাত হুসেন শোভন, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জিদনী ইসলাম, সহ-সম্পাদক ইমন চৌধুরী, সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাব্বি চোধুরীসহ ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের সম্পৃক্ত করে দায়েরকৃত মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করার দাবিতে জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে রোববার (২৪ ডিসেম্বর) বিকালে লোকনাথ দীঘি মাঠ (টেংকের পাড়) থেকে একটি বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
বিক্ষোভ কর্মসূচিতে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি অ্যাডঃ মাসুম বিল্লাহ’র সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক সাইদুল ইসলামের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন – জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ আলম সরকার, শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস, সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আলী আজম, সাধারণ সম্পাদক জসিম রানা, শহর যুবলীগের আহ্বায়ক আমজাদ হোসেন রনি, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি অ্যাডঃ লোকমান হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মোঃ আনিছুর রহমান রনি, অশেষ রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দত্ত, জাকির হোসেন, অনিক পাল, বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহবুব হোসেন, শহর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মিকায়েল হোসেন হিমেল, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাজী খাইরুল, সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম রায়হান, সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এ আর সাগর, সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল আলম রবিন, পলিটেকনিক কলেজের সাধারণ সম্পাদক রায়হায় প্রমুখ।
আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ আলম সরকার বলেন, জেলা ছাত্রলীগ একটি মডেলে রূপ নিয়েছে। তাই অযথা মিথ্যা মামলা দিয়ে ছাত্রলীগকে ধাবিয়ে রাখা যাবে না। জেলা আওয়ামীলীগের সহযোগী সংগঠন হিসাবে জেলা ছাত্রলীগকে সকলেই চিনে।
শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বলেন- জেলা ছাত্রলীগের ৫ নেতার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রতিহত করতে জেলা ছাত্রলীগই যথেষ্ট।
জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস বলেন- জেলা ছাত্রলীগের ৫ নেতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা মামলার তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার অনুরোধ জানান।
জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি অ্যাডঃ লোকমান হোসেন বলেন- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া ছাত্র সংগঠন ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগের’ আস্থাভাজন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মাটি ও মানুষের নেতা, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, সদর ৩ আসনের সাংসদ র. আ. ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর অত্যন্ত আস্থাভাজন জেলা ছাত্রলীগের ৫ নেতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মূলক দায়েরকৃত মিথ্যা মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি অ্যাডঃ মাসুম বিল্লাহ সমাপনী বক্তব্যে বলেন- আমি এই মিথ্যে ও বানোয়াট সাজানো মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। তিনি মদদাতাদের কঠোর হুশিঁয়ারী দিয়ে আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে মিথ্যে মামলা প্রত্যাহার এবং জনসম্মুখে ক্ষমা প্রার্থনা করার জন্য বলেন। অনতিবিলম্বে সকল ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে থেকে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার হুশিঁয়ারী দেন।
মিছিল ও সমাবেশ শেষে এই মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে প্রেসক্লাব, জেলা পুলিশ সুপার, জেলা প্রশাসক এবং জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কার্যালয় বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
জেলা ছাত্রলীগ, সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ, সদর থানা ছাত্রলীগ, পৌর শাখা ছাত্রলীগ ও পৌরডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সকল নেতা-কর্মী উক্ত কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করেন।
গত ১৬ ডিসেম্বর ফারুকী পার্কস্থ স্মৃতিসৌধের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দ্রুত বিচার আইন ২০০২ এর ৪/৫ ধারায় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সরাফ উদ্দিনের আদালতে জেলা ছাত্রলীগের ৫ নেতার বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়।


আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১