শিরোনাম

ছাত্রসেনা জেলার আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

| সোমবার, ১১ জুন ২০১৮ | পড়া হয়েছে 189 বার

ছাত্রসেনা জেলার আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার উদ্যোগে পবিত্র মাহে রমজানের তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল রবিবার (১০.০৬.২০১৮) বিকাল ৫টায় জেলা ছাত্রসেনার সভাপতি মুহাম্মদ ইকবাল হোসাইন শাহ বাবুলের সভাপতিত্বে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মসজিদ রোডস্থ গ্রেন্ড এ মালেক চাইনিজ থাই বাংলা পার্টি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে উদ্বোধক ছিলেন জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সহ সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সৈয়দ সায়েদুর রহমান আওলাদ।


প্রধান অতিথি ছিলেন ছাত্রসেনা জেলার সাবেক সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, রহমত, মাগফেরাত, নাজাতের মাস হল পবিত্র মাহে রমজান। পবিত্র রমজান হল পবিত্র কোরআন নাযিলের মাস। রমজান মাসেই নবীয়ে দোজাহান ও আখেরি নবী রহমাতাল্লিল আল আমীন হযরত মুহাম্মদ মুস্তাফা আহমদ মুজতবা (দ) নবুয়াত এবং রিসালাতের ঘোষণা হয়। তিনি আরো বলেন, সাহাবায়ে কেরামগণ ত্যাগ-সাধনা ও প্রিয় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর প্রেম ও ভালবাসার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে বিপুল সংখ্যক কাফেরদের মোকাবেলাই ইসলামের বিজয়ের সূমহান পতাকা উত্তোলন করে বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা করে ছিলেন। মানুষ আজ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতের সঠিক রূপরেখা ও কুরআন সুন্নাহর আদর্শ ভুলে গিয়ে মানবগড়া মতবাদকে লালন করার কারণেই ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক অঙ্গন সহ সকল ক্ষেত্রে চরম অশান্তি ও হতাশা বিরাজ করছে। তাই কুরআন সুন্নাহর সঠিক আদর্শ বাস্তবায়ন ও চর্চার মাধ্যমে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’য়াতের মতাদর্শের আলোকে এবং সাহাবায়ে কেরামের মডেলে সুন্দর সমাজ বিনির্মানের জন্য ছাত্রসেনার সকল নেতা কর্মীকে সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে সাংগঠনিক ভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা কেন্দ্রীয় পরিষদের দাওয়া বিষয়ক সম্পাদক ছাত্রনেতা মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম। এ সময় তিনি বলেন, বিশ্বে যত রাজনৈনিক সংগঠন রয়েছে তন্মধ্যে ছাত্রসেনা পরিশুদ্ধ ও নির্ভেজাল একটি ছাত্র রাজনৈতিক সংগঠন। কেননা এই সংগঠনের কর্মীরা কখনো দেশ বিরোধী কোন কর্মকান্ডে জরিত হয়নি, তাদের হাতে কেউ লুন্ঠিত হয়নি, দেশের কোন জাতীয় সম্পদ ধ্বংস হয়নি, দেশের কোন নিরীহ জনগন লাঞ্ছিত হয়নি, তাদের দ্বারা কলেজ কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস সহ কোন একটি শিক্ষার্থী রক্তে রঞ্জিত হয়নি। তিনি আরো বলেন, ইফতার মাহফিলকে কেন্দ্র করে কিছু অসাধু ব্যাক্তি যেখানে চেয়ার ভাঙ্গাভাঙ্গি করে ইফতার মাহফিলের সু-শৃঙ্খলতা নষ্ট করে পরিবেশকে উত্তপ্ত করছে সেখানে ছাত্রসেনার সেনা কর্মীরা চেয়ার ভাঙ্গাভাঙ্গি না করে সু-শৃঙ্খলভাবে ইফতার গ্রহণ করছে ও আগত রোজাদারদের হাতে ইফতার তুলে দিচ্ছে।

বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা যুবসেনার সদস্য মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ আশরাফী। তিনি তার বক্তৃতায় বলেন এক আদর্শিক রাজনৈতিক সংগঠনের নাম বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা।

আলোচনা ও ইফতার মাহফিলের জেলা সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা জুবাইর আহাম্মদ রানার সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলার সভাপতি মোহাম্মদ জাকির হোসেন জিকু, বিজয়নগর উপজেলা সভাপতি আরিফ আহমেদ খাঁন, কসবা উপজেলা সভাপতি শফিকুল ইসলাম, নাছিরনগর উপজেলা সভাপতি নূরে আলম রেজা, আশুগঞ্জ উপজেলা সভাপতি হাফেজ আতাউর রহমান মোল্লা, সরাইল উপজেলা সিনিয়র সহ-সভাপতি কাওছার আহমদ, সরাইল উপজেলার অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ আবুল হাসেম, মতিউর রহমান, মুনঈম চৌধুরী মুন্না, মুহাম্মদ আশরাফুল, মুহাম্মদ নাঈমুল হুদাসহ প্রমুখ।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০