শিরোনাম

আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার নির্বাচন

চারস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন ॥ ১৬ টি কেন্দ্র নিয়ে শঙ্কা আওয়ামীলীগের

স্টাফ রিপোর্টার | রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | পড়া হয়েছে 122 বার

চারস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন ॥ ১৬ টি কেন্দ্র নিয়ে শঙ্কা আওয়ামীলীগের

আজ রোববার পঞ্চমধাপে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার নির্বাচন। রোববার সকাল ৮ টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত পৌরসভার ৪৮টি কেন্দ্রে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) চলবে ভোট গ্রহন।

নির্বাচনে ৬জন মেয়র, ১২টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১১টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৫৬জন এবং ৪টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১৫জন সহ মোট ৭৭জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ইতিমধ্যেই পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর ওমর ফারুক জীবন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।


নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত ও বর্তমান মেয়র মিসেস নায়ার কবির-(নৌকা), বিএনপি মনোনীত জহিরুল হক খোকন-(ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মাহমুদুল হক ভূইয়া-( মোবাইল ফোন), বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি মনোনীত মোঃ নজরুল ইসলাম (হাতুড়ী), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত মোঃ আবদুল মালেক (হাতপাখা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল কারীম (নারিকেল গাছ)।

এদিকে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রশাসনের পক্ষ থেকে চারস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। এদিকে সুষ্ঠু, সন্দর ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠানের জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন জেলা নির্বাচন অফিস।

শনিবার ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সকাল থেকেই প্রতিটি কেন্দ্রে পৌঁছে দেয়া হয়েছে ইভিএমসহ নির্বাচনী সরঞ্জাম। স্ব-স্ব কেন্দ্রের দায়িত্বরত প্রিজাইডিং অফিসারগন নির্বাচনী সরঞ্জাম বুঝে নিয়েছেন।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনী এলাকায় ১২ প্লাটুন বিজিবি, ৭৮৫ জন পুলিশ, ৪৩২ জন আনসার সদস্য, র‌্যাবের পক্ষ থেকে ৬টি স্ট্রাইকিং ফোর্স নিরাপত্তায় থাকবে। ৪৮টি ভোট কেন্দ্রে ২৪ জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে নির্বাচন উপলক্ষে শনিবার সকাল ১০টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ লাইন্সে জেলা পুলিশের এক নির্বাচনী ব্রিফিং প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান।

প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয়, পৌরসভার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভোট কেন্দ্রসহ জেলা সদরের আইন-শৃংখলা রক্ষার্থে নির্বাচনী এলাকায় চারস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। ৪৮টি ভোট কেন্দ্রে ১৬টি মোবাইল টিম, ১২টি স্ট্রাইকিং টিম, ৭টি স্ট্যান্ডবাই পার্টি, ১২টি চেক পোস্ট ডিউটি, ২টি নৌ-টহলসহ পোষাকধারী ও সাদা পোষাকে ৮শত জন পুলিশ অফিসার ও ফোর্স মোতায়েন করা হবে। এছাড়াও ১ জন জুুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট, ২৪জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ২৭ জন র‌্যাব, ২৪০ জন বিজিবি সদস্য, ১০ জন ব্যাটালিয়ন আনসার এবং ৪৩২ জন অঙ্গীভূত আনসার নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করবেন। ব্রিফিংয়ে জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ৪৮টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১৬টি ভোট কেন্দ্রকে বিপদজ্জনক উল্লেখ করে সেই কেন্দ্রগুলোর শান্তি-শৃঙ্খলা ও ভোটারদের নিরাপত্তা বিধানে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দাবি জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরকার। শনিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এই শঙ্কার কথা বলেন।

আল-মামুন সরকার বলেন, পৌর এলাকার ভাদুঘর দারুস সুন্নাহ কামিল (এমএ) মাদরাসা (পূর্ব ভবন), ভাদুঘর দারুস সুন্নাহ কামিল (এমএ) মাদরাসা (উত্তর ভবন), ভাদুঘর দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (পুরাতন ভবন), ভাদুঘর দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (নতুন ভবন), ভাদুঘর (পূর্ব) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ( পূর্ব ভবন), ভাদুঘর (পূর্ব) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ( পশ্চিম ভবন) ও ভাদুঘর ঋষিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ, কাউতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,নয়নপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজ ( ভবন-৩), ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজ (ভবন-২) ও পূর্ব পাইকপাড়া হুমায়ূন কবির পৌর প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহমুদুল হক ভূইয়ার (মোবাইল ফোন), সমর্থকরা জোর করে এককভাবে ভোট নেয়ার চেষ্টা করবে।

এছাড়া শহরের শিমরাইলকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিমরাইলকান্দি (দক্ষিণ) বে-সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তোফায়েল আজম কিন্ডার গার্টেন কেন্দ্রে বিএনপির প্রার্থী জহিরুল হক (ধানের শীষ) এর সমর্থকরা জোরপূর্বক ধানের শীষে ভোট দেয়ার চেষ্টা করবে। তিনি এই ১৬টি কেন্দ্রে শান্তি-শৃঙ্খলা ও ভোটারদের নিরাপত্তা বিধানে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দাবি জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে নির্বাচনে রিটানিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান বলেন, অবাধ, সুষ্ঠ ও নিরপক্ষে নির্বাচন সম্পন্ন করার সকল প্রস্ততি গ্রহন করা হয়েছে। তিনি বলেন, শনিবার দুপুরের মধ্যেই ৪৮টি কেন্দ্রে নির্বাচনী প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম বিতরণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য ১৮৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা ১৯৯২ সালে প্রথম শ্রেনীর পৌরসভায় উন্নীত হয়।পৌরসভার আয়তন প্রায় সাড়ে ১৮ বর্গকিলোমিটার। পৌরসভায় বর্তমানে প্রায় তিন লাখ মানুষের বসবাস। ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ২০ হাজার ৫০৪জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫৯ হাজার ৬৬২ জন এবং মহিলা ভোটার ৬০ হাজার ৯৪২জন। ১২টি সাধারণ ও ৪টি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা গঠিত।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০