শিরোনাম

গোলাম আযমের মাদরাসা দেখাশোনা করেন মনোনয়ন প্রত্যাশী এক প্রার্থী

| রবিবার, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | পড়া হয়েছে 360 বার

গোলাম আযমের মাদরাসা দেখাশোনা করেন মনোনয়ন প্রত্যাশী এক প্রার্থী

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের জন্য চূড়ান্ত করা উপজেলা আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী হাবিবুর রহমান স্টিফেনের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীরা। হাবিবুর রহমান স্টিফেন নবীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি।

শনিবার (০৯.০২.২০১৯) বেলা ১১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।


সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী কাজী জহির সিদ্দিক টিটু, সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস ও এইচ.এম আল-আমিন আহমেদ।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী হাবিবুর রহমান স্টিফেন শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমের প্রতিষ্ঠা করা সোবহানিয়া দাখিল মাদরাসা দেখাশোনা করেন বলে অভিযোগ করেছেন প্রার্থীরা।

যুদ্ধাপরাধের দায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত গোলাম আযমের বাড়ি নবীনগর উপজেলার বীরগাঁও ইউনিয়নের বীরগাঁও গ্রামে। আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিবুর রহমান স্টিফেনের বাড়িও একই গ্রামে।

ওই প্রার্থী বলেন, হাবিবুর রহমান স্টিফেন একজন ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা। তার বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে অভিযোগও দিয়েছিল বীরগাঁও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড। মন্ত্রণালয় থেকে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছিল।

তারা বলেন, হাবিবুর রহমান স্টিফেনের সঙ্গে তৃণমূল নেতাকর্মীদের কোনো যোগাযোগ নেই। তিনি জালিয়াতির মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় নাম লিপিবদ্ধ করানোয় বীরগাঁও ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ করা হয়েছিল। সেই অভিযোগ তদন্তের পর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

তারা আরও বলেন, আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের দল। তাই বিতর্কিত মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান স্টিফেনকে বাদ দিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাশী বাকি প্রার্থীদের মধ্যে থেকে কাউকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানান তারা।

হাবিবুর রহমান স্টিফেন এসব অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার পর যাচাই-বাছাইয়ে সকল কাগজপত্র দেখে প্রমাণিত হয়েছে আমি প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১