শিরোনাম

পুলিশের ব্যাপক প্রচারনার ফলে

গনপিটুনীর হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে এক মানসিক রোগী সীমা

স্টাফ রিপোর্টার | শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০১৯ | পড়া হয়েছে 233 বার

গনপিটুনীর হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে এক মানসিক রোগী সীমা

গুজবে কান দিবেন না। ছেলে ধরা বলে সন্দেহে কাউকে আটক করে মারধর কিংবা প্রাণে মেরে আইন হাতে তুলে নিবেন না জেলা পুলিশের এ ধরনের ব্যাপক প্রচার-প্রচারণার ফলে মানসিক রোগী মাহমুদা বেগম সীমাকে-(২৩) আটক করে পুলিশে তুলে দেয় স্থানীয় লোকজন। গত ২৪ জুলাই বুধবার বেলা ১১টায় সদর উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নের মৈন্দ গ্রামের লোকজন তাকে আটক করে পুলিশের কাছে তুলে দেয়।

মাহমুদা বেগম সীমা বিজয়নগর উপজেলার সাতগাঁও গ্রামের মোহাম্মদ আলীর কন্যা এবং সরাইল উপজেলার কুট্টাপাড়া গ্রামের শরীফ উদ্দিনের স্ত্রী।


পুলিশের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত বুধবার বেলা ১১টায় মাহমুদা বেগম সীমা মৈন্দ গ্রামের রাজবাড়ীতে গিয়ে গ্রামের আনোয়ার হোসেনের তিন বছর বয়সী শিশু কন্যা মুন্নি আক্তারকে আদর করতে গেলে স্থানীয় লোকজন সন্দেহমূলকভাবে তাকে আটক করে পুলিশকে সংবাদ দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে সীমাকে উদ্ধার করে।

পুলিশ জানায়, গুজব সম্পর্কে তাদের ব্যাপক প্রচার-প্রচারণার ফলে মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। তাই তারা সীমাকে মারধোর না করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কাউকে সন্দেহ হলে থানায় খবর দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১